For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ব্যান্ডেলে কলকাতা পুরনিগমের কর্মী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার আরও ১ যুবক

তদন্তে উঠে এসেছে, পুরোনো শত্রুতার জেরে খুন করা হয় লালবাবুকে। রামাকে দিয়েই আদিত্য এই খুন করিয়েছে বলে দাবি পুলিশের।
06:07 PM Jul 09, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
ব্যান্ডেলে কলকাতা পুরনিগমের কর্মী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার আরও ১ যুবক
Courtesy - Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: হুগলি জেলার(Hooghly District) চুঁচুড়া সদর মহকুমার ব্যান্ডেলে(Bandel) কলকতা পুরনিগমের কর্মী লালবাবু গোয়ালার খুনের(KMC Worker Murder) ঘটনায় আরও এক যুবককে গ্রেফতার(One More Youth Arrested) করল চুঁচুড়া থানার পুলিশ। ধৃতের নাম চিরঞ্জিৎ রায় ওরফে রামা। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত খুনের কথা স্বীকার করে নিয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। মঙ্গলবার তাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক ১১ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। তদন্তে উঠে এসেছে, পুরোনো শত্রুতার জেরে খুন করা হয় লালবাবুকে। যদিও মঙ্গলবার থানা থেকে রামাকে স্বাস্থ্যপরীক্ষা করাতে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে খুনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে রামা। পাশাপাশি লালবাবু খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র এখনও উদ্ধার হয়নি।   

Advertisement

উল্লেখ্য, গত ৩ জুলাই, বুধবার সন্ধ্যায় দেবানন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ব্যান্ডেল নিউ কাজিডাঙা এলাকায় গুলি করে খুন করা হয় কলকাতা পুরনিগমের কর্মী লালবাবুকে। খুনের তদন্তে নামে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের গোয়েন্দারা। মৃতের পরিবারের তরফে লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর মৃতের ভাইপো আদিত্য গোয়ালাকে আগেই গ্রেফতার করা হয়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পর সোমবার রাতে ব্যান্ডেল থেকে রামাকে পাকড়াও করে চুঁচুড়া থানার পুলিশ। তদন্তে উঠে এসেছে, পুরোনো শত্রুতার জেরে খুন করা হন লালবাবু। খুনের কিছু দিন আগে লালবাবুর সঙ্গে ভাইপো আদিত্যের ঝগড়া হয়েছিল। তখন জ্যাঠাকে খুনের হুমকি দেয় নৈহাটির ঋষি বঙ্কিম কলেজের ছাত্র আদিত্য। তার পরেই ওই খুনের ঘটনা ঘটে।

Advertisement

যে জায়গায় লালবাবু খুন হন, সেই জায়গাটি আলোআঁধারি ছিল। মাঠের পাশ দিয়ে আদিত্যের বাড়ি কয়েক সেকেন্ডের রাস্তা। আদিত্য নিজেই খুন করেছেন না কি, খুনের জন্য কাউকে ভাড়া করেছিলেন, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তাঁকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালানোর পাশাপাশি খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারের চেষ্টা চলবে বলে জানাচ্ছেন তদন্তকারীরা। রামার সঙ্গে আদিত্যের কোনও ভিন্ন রকমের যোগ রয়েছে কিনা সেটাও এখন খতিয়ে দেখছেন পুলিশের আধিকারিকেরা। একই সঙ্গে এই ঘটনার পিছনে পারিবারিক কোনও বিবাদ কাজ করছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখছেন পুলিশ আধিকারিকেরা। লালবাবু ব্যান্ডেলের নিউ কাজিডাঙা এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। ঘটনার সময় তিনি ব্যান্ডেল স্টেশনে নেমে হেঁটে কুলিপাড়া দিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই সময় পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে তাঁকে খুন করা হয়।

Advertisement
Tags :
Advertisement