For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপের খাতে ১৫০০ কোটির বরাদ্দ

স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপ প্রদানের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার এইবছর ১৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে।
10:14 AM Jan 27, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপের খাতে ১৫০০ কোটির বরাদ্দ
Courtesy - Facebook and Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: বাংলার(Bengal) দুঃস্থ পরিবারের মেধাবী পড়ুয়ারা যাতে অর্থের অভাবে ডাক্তারি, ইঞ্জিনিয়ারিং বা অন্য কোনও পেশায় যাওয়ার জন্য পড়াশোনা করার সুযোগ হারিয়ে না ফেলে তার জন্য রাজ্যের ক্ষমতাসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) সরকার চালু করেছে Swami Vivekananda Merit cum Means Scholarship Scheme। সেই স্কলারশিপ প্রকল্পের জন্যই এবার বরাদ্দ বাড়িয়ে দিল রাজ্য সরকার। এই স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য ইতিমধ্যে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়ে গিয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত চলবে এই প্রক্রিয়া। মার্চের মধ্যেই যোগ্য আবেদনকারীর অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। আর সেই সূত্রেই জানা গিয়েছে, এই বৃত্তি প্রদানের বাজেট(Budget) গতবারের তুলনায় এবার আরও বাড়ানো হয়েছে। এবার এই খাতে ১৫০০ কোটি টাকা(1500 Crore Rupees) খরচ করার প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।

Advertisement

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই বছর স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপ দু’টি বিভাগে প্রদান করা হচ্ছে। নতুন করে আবেদন এবং পুনর্নবীকরণ, এই দুটি বিভাগে আবেদন জমা নেওয়া হচ্ছে। গতবার যেমন দু’টি বিভাগেই প্রায় একই সংখ্যক আবেদন জমা পড়েছিল। General Degree College, Polytechnic, Medical, Engineering বিভাগের পড়ুয়াদের পাশাপাশি উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়ারাও এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারেন। তবে এখনও বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ না হওয়ার কারণে আপাতত আবেদনের হার কিছুটা কম রয়েছে বলে খবর। রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের অভিমত, কয়েকদিনের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলির ফল প্রকাশ হবে। তারপরেই স্কলারশিপের জন্য আবেদনের হিড়িক পড়বে।

Advertisement

শুরুতে এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে গেলে শেষ পরীক্ষায় ৭৫ শতাংশ নম্বর থাকা বাধ্যতামূলক ছিল। তাতে অনেক দুঃস্থ, মেধাবী পড়ুয়া বঞ্চিত হচ্ছিলেন। তাই বছর দুই আগেই সেই যোগ্যতামান কমিয়ে ৬০ শতাংশ করা হয়েছে। তারপর থেকে আবেদনের হার বেড়ে যায়।  এক সময় যেখানে ৩ থেকে ৫ লক্ষের মধ্যে ঘোরাফেরা করতে আবেদনের সংখ্যা, এখন সেটা ৮ লক্ষ ছাড়িয়েছে। সেই কারণে এই বৃত্তি প্রদানের বাজেটও উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০২২-২৩ সালে এই খাতে ১৪০০ কোটি টাকা খরচ হয়েছিল রাজ্যের। তার আগের বছর বাজেট ছিল ১১০০ কোটি। এবার যে টাকা ধার্য করা হয়েছে, তা সব খরচ হয়েও যাওয়ার পরও অনেকে বাকি থাকলে বাজেট আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা নেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে বাজেট ১৬০০ কোটি টাকার আশেপাশে থাকতে পারে।

Advertisement
Tags :
Advertisement