For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

Sub Inspector’র বাড়িতে ডাকাতি করে পুলিশের জালে ৪ দুষ্কৃতী

রাজ্য পুলিশের Sub Inspector পদে কর্মরত সুশান্ত বিশ্বাসের বাড়িতে ডাকাত দল চড়াও হয়েছিল গত শনিবার। তার ৪ দিনের মধ্যেই গ্রেফতার ৪জন।
02:12 PM Jan 11, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
sub inspector’র বাড়িতে ডাকাতি করে পুলিশের জালে ৪ দুষ্কৃতী
Courtesy - Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: পুলিশ আধিকারিকের বাড়িতে দলবল নিয়ে ডাকাতি করে এবার পুলিশের জালেই জড়িয়ে গেল ৪ দুষ্কৃতী। গত শনিবার রাতে পূর্ব বর্ধমান(Purba Burdwan) জেলার আউশগ্রামের(Ayushgram) ছোড়া কলোনিতে এক পুলিশ আধিকারিকের বাড়িতে(Police Officers House) ডাকাতির ঘটনা(Dacoity Incident) ঘটে। ডাকাতি করতে এসে দুষ্কৃতীরা শুধু যে গুলি চালিয়েছিল তাই নয়, তাদের ভোজালির কোপে গুরুতর জখমও হয়েছিলেন ১জন। তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তিও করাতে হয়। সেই ঘটনার তদন্তে নেমেই এবার পুলিশ চার দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবারই তাদের আদালতে তোলা হচ্ছে। সেই সঙ্গে বাকিদের খোঁজও চালিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা। 

Advertisement

গত শনিবার রাতে আউশগ্রামের ছোড়া কলোনিতে রাজ্য পুলিশের Sub Inspector পদে কর্মরত সুশান্ত বিশ্বাসের বাড়িতে ডাকাত দল চড়াও হয়েছিল। হাওড়া গ্রামীন পুলিশ জেলার SI পদে কর্মরত সুশান্তবাবু তখন বাড়িতেই ছিলেন। তিনি ডাকাতদলকে বাধা দিতে এলে তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয়। তাঁর হাত পা মুখ চোখ বেঁধে একটি ঘরে ঢুকিয়ে দিয়ে বাড়ির অনান্য সদস্যদের প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে তাঁদেরকেও ওই ঘরে ঢুকিয়ে বেঁধে রেখে অপারেশন চালায় দুষ্কৃতীরা। সেই সময় শব্দ পেয়ে এক প্রতিবেশী এগিয়ে এলে তাকে ভোজালির কোপ মারে দুষ্কৃতীরা। তার দেহের ৩ জায়গায় ভোজালির কোপ মারা হয়। রক্তাক্ত অবস্থায় সেখানেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্রামবাসীদের দাবি, পালানোর সময় গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। দলে তারা অন্তত ১৫জন ছিল। ১০ জন বাড়িতে ঢুকে অপারেশন চালায়। বাকিরা বাইরে ছিল। রাত দুটো থেকে আড়াইটা পর্যন্ত আধ ঘন্টা ধরে অপারেশন চালায় দুষ্কৃতীরা। চলে যাওয়ার সময় ঘরের দরজা বাইরের দিক থেকে বন্ধ করে দিয়ে যায় তারা। গুলির শব্দ ও পরিবারের সদস্যদের ডাকাডাকিতে ঘটনার পর ওই বাড়ির সামনে জমা হন স্হানীয় বাসিন্দারা। খবর দেওয়া হয় আউশগ্রাম থানায়।

Advertisement

সেই ঘটনার জেরে জোরদার তদন্ত শুরু করে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। রবিবার সকালে SI সুশান্ত বিশ্বাসের বাড়িতে যান জেলার পুলিশ সুপার আমনদীপ সহ পদস্থ কর্তারা। তাঁরা পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনার বিবরণ শোনেন। তদন্তের স্বার্থে দুষ্কৃতীদের হদিশ পেতে আশপাশের থানাগুলিকেও তৎপর থাকতে বলা হয়েছিল। এবার দেখা গেল সেই তৎপরতায় কাজ হয়েছে। পাশের পশ্চিম বর্ধমান জেলারই পান্ডবেশ্বর থেকে এই ডাকাতির ঘটনায় যুক্ত ৪জন ধরা পড়েছে পুলিশের হাতে। এদের জিজ্ঞাসাবাদ করেই বাকিদের সন্ধান শুরু করতে চায় পুলিশ।

Advertisement
Tags :
Advertisement