For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

দিঘায় সমুদ্রস্নানে নেমে তলিয়ে গেল এক স্কুল পড়ুয়া

শুভজিতের খোঁজে দিঘা থানার পুলিশও তৎপর হয়ে উঠেছে। নামানো হয়েছে স্পিড বোটও। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত শুভজিতের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।
04:50 PM Jun 14, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
দিঘায় সমুদ্রস্নানে নেমে তলিয়ে গেল এক স্কুল পড়ুয়া
Courtesy - Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: বন্ধুদের সঙ্গে নয়, মায়ের সঙ্গে ঘুরতে গিয়েছিল সে। মদ্যপও ছিল না সে, হওয়ার কথাও নয়, কেননা সে যে স্কুল পড়ুয়া। তবুও দিঘায়(Digha) সমুদ্রস্নানে নেমে তলিয়ে গেল সে। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে শুক্রবার সকালে দিঘার জগন্নাথ ঘাটে(Jagannath Ghat), যার অবস্থান নিউ দিঘা আর ওলড দিঘার মাঝামাঝি জায়গায়। নিখোঁজ স্কুল পড়ুয়ার(School Student Drowned) নাম শুভজিৎ দে। বয়স ১৫। বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রাম থানা এলাকায়। বৃহস্পতিবার শুভজিৎ আর তার ভাই বিশ্বজিৎ তাদের মায়ের সঙ্গে দিঘা বেড়াতে যায়। দুইজনই স্কুল পড়ুয়া। তারা মায়ের সঙ্গে ওল্ড দিঘার জগন্নাথ ঘাটে স্নান করতে যায় এদিন। যদিও শুক্রবার সকাল থেকেই দিঘার সমুদ্র ছিল উত্তাল। সকাল ১০টা নাগাদ তারা জগন্নাথ ঘাটে স্নান করতে নামে। স্নান করার সময় শুভজিৎকে তলিয়ে যেতে দেখে বিশ্বজিৎ তাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে যায়। ঘটনাটি সেই সময় নজর পড়ে নুলিয়াদেরও। তাঁরা সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বজিৎকে উদ্ধার করতে ঝাঁপিয়ে পড়েন। কিন্তু তলিয়ে যায় শুভজিৎ। ঘটনার খবর পেয়ে জগন্নাথ ঘাটে যায় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা। যদিও বিকাল পর্যন্ত শুভজিতের সন্ধান মেলেনি।  

Advertisement

চোখের সামনে নিজের ছেলেকে সাগরের বুলে তলিয়ে যেতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন শুভজিতের মা। শুভজিতের খোঁজে দিঘা থানার(Digha PS) পুলিশও তৎপর হয়ে উঠেছে। নামানো হয়েছে স্পিড বোট। দীর্ঘক্ষণ ধরে খোঁজাখুজি করা হয় তাকে। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত শুভজিতের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। ইতিমধ্যেই পরিবারের সদস্যরা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। দিঘা থাকার তরফে দুটি স্পিডবোট এবং নুলিয়াদের উদ্ধার কাজে লাগানো হয়েছে। দিঘার সমুদ্রে স্নান করতে নেমে যাতে কোনও দুর্ঘটনা না ঘটে সেই কারণে নুলিয়ারা থাকেন। এছাড়াও পর্যটকদের বারেবারে সতর্ক করা হয় যাতে বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় মদ্যপ অবস্থায় স্নানে নেমে তলিয়ে গিয়েছেন পর্যটকেরা। কিন্তু শুভজিতের ঘটনা দেখিয়ে দিল দিঘার কোনও ঘাটই খুব একটা নিরাপদ নয়। সাগর উত্তাল থাকলে আর চোরা স্রোত জেগে উঠলে সেখানে যখন তখন যে কেউ দুর্ঘটনার মুখে পড়তে পারেন। ভাল সাঁতার না জানলে সেক্ষেত্রে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা তখন প্রবল হয়ে ওঠে।

Advertisement

Advertisement
Tags :
Advertisement