For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ছোটবেলা থেকেই 'কামচোর' ছিলেন অভিনেতা মোশাররফ করিম

ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে, আর তিনিই ছবিতে আছেন। সেটাই প্রধান কারণ। এরপর ছবির প্রযোজক ফিরদৌস ও পরিচালক ব্রাত্য বসু। ছবিটি ডাবিংয়ের সময় দেখা হয়ে গিয়েছে তাঁদের
07:18 PM Jan 15, 2024 IST | Sushmitaa
ছোটবেলা থেকেই  কামচোর  ছিলেন অভিনেতা মোশাররফ করিম
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা: বর্তমানে বায়োপিকগুলিতে শুধু নামি-দামি মানুষের নয়, সমাজের নানা ধরনের মানুষের কাহিনী ঠাঁই পায় সিনেমাগুলিতে। সমাজের ছাঁচে ফেলে নানা কাহিনী গড়া হয়। সাধারণ মানুষের জীবন কাহিনীও স্থান পায় চলচ্চিত্রে। কখনও কখনও সেখানে গুণ্ডা, গ্যাংস্টার, নানা মানুষের কাহিনীও চিত্রিত হয়। তেমনই একজন হলেন লোক পরিচিত গুণ্ডা 'হুব্বা'। যে একসময় পশ্চিমবঙ্গের হুগলির জেলার ত্রাস ছিলেন। মারা গেলেও তাঁর নামে এখনও সেখানকার বাসিন্দারা কাঁপে। এবার সেই হুব্বাই আসছে পর্দায় রাজ করতে। হ্যাঁ, যে চরিত্রে অভিনয় করবেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম।

Advertisement

শুধু নায়ক হলেই যে পরিচিতি পাওয়া যায়, তা কিন্তু একেবারেই নয়! তার উল্লেখযোগ্য প্রমাণ মোশাররফ করিম। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই অভিনেতা শুধু বাংলাদেশের নয়, বাংলার মানুষের কাছেও বেশ জনপ্রিয়। এবার তিনি আসছেন কলকাতার ‘হুব্বা’ হয়ে, অনেক আগেই মুক্তি পেয়েছিল ছবির ফার্স্টলুক, পোস্টার, টিজার, ট্রেলার। এবার মুক্তি পেল ছবি মুক্তির তারিখ। ১৯ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশে এক সহযোগে মুক্তি পাবে এই ছবি। ছবিটির পরিচালক পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী তথা অভিনেতা ব্রাত্য বসু। সুতরাং বুঝতেই পারছেন, ছবিটি নিয়ে দুই বাংলায় কতটা এক্সাইটেড। সম্প্রতি ছবির প্রযোজকের বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে অভিনেতা ছবিটি নিয়ে একাধিক কথা শেয়ার করলেন। জানালেন কেন বাংলাদেশের মানুষদের ছবিটি সবার দেখা উচিত!

Advertisement

অভিনেতার কথায়, ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে, আর তিনিই ছবিতে আছেন। সেটাই প্রধান কারণ। এরপর ছবির প্রযোজক ফিরদৌস ও পরিচালক ব্রাত্য বসু। ছবিটি ডাবিংয়ের সময় দেখা হয়ে গিয়েছে তাঁদের। সাধারণত নিজের ছবি নিয়ে সন্তুষ্টি হয় না অভিনেতার, কিন্তু “হুব্বা” নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট।’ ‘হুব্বা’ ছবিতে মোশাররফ করিমকে নানা রূপে দেখা যাবে। ছবিতে নিজের চরিত্র নিয়ে মোশাররফ করিম বলেন, চরিত্রটি নিয়ে রীতিমতো ভয়ে ছিলেন তিনি। এই চরিত্রে নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুতি করাটাও চ্যালেঞ্জিং। কারণ, এই চরিত্রের অনেকগুলো স্তর ছিল। তবে সবকিছু মিলিয়ে তিনি খুশি। দর্শকরাও খুশি হবেন। এরপর চরিত্রের জন্যে স্ট্রাগল নিয়ে অভিনেতা বলেন, স্ট্রাগল শব্দটায় তিনি বিশ্বাসী নন। তাঁর বাড়ির লোকেরা তাঁকে কখনই বাজারে পাঠাত না। কারণ সেগুলি তাঁর কাছে বেগার খাটা মনে হত। তাই বাড়ির সবাই তাঁকে “কামচোরা” বলত। অভিনয়েও পরিশ্রম আছে। কিন্তু অভিনয় তাঁর ভালোবাসার জিনিস। তাই একে পরিশ্রম মনে হয় না তাঁর।

প্রতিদিন ১০ মাইল হেঁটে রিহার্সালে যেতেন। প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের গ্যাংস্টার হুব্বা শ্যামলের জীবনের কাহিনি নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘হুব্বা’ ছবিটি। তাঁকে মুলত ‘হুগলির দাউদ ইব্রাহিম’ বলা হত। খুন, মারামারি, মাদক চোরাচালানসহ বিভিন্ন অপরাধে তিনি রাজ করতেন। এবার তিনিই পর্দায় উঠে আসছেন মোশাররফ করিমের মাধ্যমে।

Advertisement
Tags :
Advertisement