For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

'পচা সমাজের জন্য লজ্জা', ঝাড়খণ্ডে স্প্যানিশ মহিলা গণধর্ষণে চাঁচাছোলা রিচা চাড্ডা

এই ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে অভিনেতা রিচা চাড্ডা নিজের ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, 'আমাদের পচা সমাজের জন্য লজ্জাজনক! ভারতীয়রা বিদেশীদের সঙ্গে তাদের নিজেদের মহিলাদের মতো আচরণ করছে।
01:08 PM Mar 03, 2024 IST | Sushmitaa
 পচা সমাজের জন্য লজ্জা   ঝাড়খণ্ডে স্প্যানিশ মহিলা গণধর্ষণে চাঁচাছোলা রিচা চাড্ডা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশের মাটিতে দেশের মেয়েরা তো বটে, বর্তমানে বিদেশীরাও ভারতে মাটিতে সুরক্ষিত নয়। গত শুক্রবার গভীর রাতে ঝাড়খন্ডের দুমকার হাঁসডিহা এলাকায় একজন স্প্যানিশ মহিলাকে গণধর্ষণের ঘটনা ইতিমধ্যেই গোটা দেশে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে। যখন ওই স্প্যানিশ মহিলা পর্যটকটি তাঁর স্বামীর সঙ্গে বাইকে চেপে ঝাড়খণ্ডের নির্জন জায়গায় একটি অস্থায়ী তাঁবুতে রাত কাটানোর জন্যে আস্তানা গেড়েছিলেন। তখনই একদল অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির কাছে গণধর্ষণের শিকার হন ওই বিদেশীনী। এবার এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হলেন অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। যদিও এই প্রথম নয়, রিচা চাড্ডা বিভিন্ন সময়েই সমাজের বিভিন্ন কাণ্ডে নেটপাড়ায় এসে সরব হন।

Advertisement

সূত্রের খবর, ওই স্প্যানিশ দম্পতি বাংলাদেশ থেকে একটি টু-হুইলারে চেপে ঝাড়খন্ডে পৌঁছন। তাঁরা বিহার হয়ে নেপাল যাচ্ছিলেন বলে খবর। তখনই ঝাড়খণ্ডের দুমকায় তাঁবু খাটিয়ে থাকাকালীন একদল ব্যক্তি মহিলাটিকে গণধর্ষণ করেন, এবং তাদের মারধরও করা হয়। এরপর ওই নির্যাতিতা মহিলা নিজেই স্বামীকে নিয়ে থানায় অভিযোগ জানাতে জন। এখনও পর্যন্ত এই মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং বাকি অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। এই ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে অভিনেতা রিচা চাড্ডা নিজের ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, "আমাদের পচা সমাজের জন্য লজ্জাজনক! ভারতীয়রা বিদেশীদের সঙ্গে তাদের নিজেদের মহিলাদের মতো আচরণ করছে। আমাদের পচা সমাজের জন্য ধিক্কার।"

Advertisement

ঘটনার তদন্তের জন্য একটি বিশেষ তদন্ত দল (SIT) গঠন করা হয়েছে বলে থানার কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ওই মহিলা ইনস্টাগ্রাম ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, "৭ পুরুষ আমাকে ধর্ষণ করেছে। এমনকী তারা আমাদের মারধর করেছে এবং আমাদের সবকিছু ছিনতাই করে নিয়েছে।" দুমকার সিভিল সার্জন বাচ্চা প্রসাদ সিং পিটিআইকে জানিয়েছেন যে, নির্যাতিতা মহিলাটির, বয়স প্রায় ২৮ বছর, তাঁর ৬৪ বছর বয়সী স্বামী দুমকার ফুলো ঘানো মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে এখন চিকিৎসাধীন। আর নির্যাতাতার ডাক্তারি পরীক্ষা চলেছে তিনজন গাইনোকোলজিস্ট, একজন রেডিওলজিস্ট, একজন অর্থোপেডিক এবং একজন ডেন্টিস্টের সমন্বয়ে।

Advertisement
Tags :
Advertisement