For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

দলের জয় উদযাপন করতে গিয়ে গাড়ি চাপা পড়ে প্রাণ হারালেন ৬ গিনি সমর্থক

05:48 PM Jan 23, 2024 IST | Sundeep
দলের জয় উদযাপন করতে গিয়ে গাড়ি চাপা পড়ে প্রাণ হারালেন ৬ গিনি সমর্থক
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: আনন্দ নিমিষেই বদলে গেল বিষাদে। আফ্রিকান নেশনস কাপে সোমবার গাম্বিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথম জয় তুলে নিয়েছিল গিনি। আর জাতীয় ফুটবল দলের ওই জয়ের খবরেই আনন্দে রাস্তায় নেমে এসেছিলেন গিনির ফুটবল সমর্থকরা। রাজধানী ক্রোনাকিতে একাধিক বিজয় মিছিল বের করেছিলেন তাঁরা। ওই বিজয় মিছিলেই ঘটল দুর্ঘটনা। গাড়ির তলায় চাপা পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ছয় সমর্থক। মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় গোটা দেশেই নেমে এসেছে শোকের ছায়া। ভবিষ্যতে আনন্দ উ‍ৎসব করার ক্ষেত্রে সংযত থাকার জন্য সমর্থকদের কাছে আর্জি জানিয়েছে গিনি ফুটবল ফেডারেশন।

Advertisement

আইভরি কোস্টে বর্তমানে চলছে আফ্রিকান নেশনস কাপ। আফ্রিকার ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে নেমেছে সেনেগাল-ক্যামেরুনের মতো বিশ্ব ফুটবলের সাড়া জাগানো দেশগুলি। গ্রুপ লিগের প্রথম ম্যাচে ক্যামেরুনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার পরে গাম্বিয়াকে হারিয়ে দিয়েছেন গিনির ফুটবলাররা। ম্যাচের ৬৯ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন কামারা। নিজেদের শেষ ম্যাচে সেনেগালের বিপক্ষে খেলতে নামবে গিনি। ওই ম্যাচে ড্র করলেই পরের রাউন্ডে চলে যাবেন কামারারা। তবে হারলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার সুযোগ থাকবে গিনির। সেক্ষেত্রে ক্যামেরুন ও গাম্বিয়ার ফলাফলের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে তাদের।

Advertisement

আফ্রিকান নেশনস কাপে দলের ফুটবলারদের পারফরম্যান্সে খুশির জোয়ারে ভাসছেন গিনির ফুটবল সমর্থকরা। গাম্বিয়ার বিরুদ্ধে জয়ের পরেই খুশির উল্লাসে মেতে উঠেছিলেন তাঁরা। আর সেই বিজয় উ‍ৎসবেই ঘটে গিয়েছে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা এক সঙ্গে ৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। গিনির জাতীয় ফুটবল দলের ম্যানেজার আমাদো মাকাদজি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘বিবিসি’কে দেওয়া সাক্ষা‍ৎকারে বলেন, ‘সমর্থকদের কাছে আমাদের একটাই অনুরোধ থাকবে তা হলো- বিজয় উ‍ৎসব পালনের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্ক থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে আনন্দ উদযাপন করতে গিয়ে কেউ যেন নিজের পরিবারকে অসহায় করে দিয়ে না ফেরার দেশে চলে না যান।’

Advertisement
Tags :
Advertisement