For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

পাকিস্তানে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে ৫ চিনা নাগরিকের মৃত্যুর পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চাইল বেজিং

12:26 AM Mar 27, 2024 IST | Sundeep
পাকিস্তানে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে ৫ চিনা নাগরিকের মৃত্যুর পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চাইল বেজিং
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, ইসলামাবাদ: খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের বিশমে ভয়াবহ বিস্ফোরণে পাদ স্বদেশীয় নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চাইল চিন সরকার। মঙ্গলবার ইসলামাবাদেব অবস্থিত চিনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে ঘটনার নিন্দা করে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনায় পিছনে থাকা ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে খঠোর শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।’ একই সঙ্গে পাকিস্তানে বিভিন্ন প্রকল্পের কাজে নিয়োজিত চিনা নাগরিকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করারও দাবি জানানো হয়েছে।

Advertisement

এদিন দুপুরে পাখতুনখাওয়া প্রদেশের বিশমে চিনা নাগরিকদের বহন করা গাড়ি আত্মঘাতী বিস্ফোরণে উড়িয়ে দেন জঙ্গিরা। ছিন্নভিন্ন হয়ে যান গাড়িতে থাকা ছয় আরোহী। তাদের মধ্যে পাঁচ জন চিনা নাগরিক এবং একজন পাকিস্তানের নাগরিক। এখনও কোনও জঙ্গি সংগঠন ওই আত্মঘাতী হামলার দায় নেয়নি। খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের পুলিশ আধিকারিক মহম্মদ আলি গান্দাপুর জানিয়েছেন, খাইবার পাখতুনখাওয়ার দাসুতে জলবিদ্যুৎকেন্দ্র এবং বাঁধ নির্মাণকার্যের দায়িত্বে রয়েছে চিনের গেঝুবা গোষ্ঠী। এদিন দুপুরে ইসলামাবাদ থেকে নিজেদের ঘাঁটি দাসুতে ফিরছিলেন পাঁচ চিনা ইঞ্জিনিয়ার। মাঝপথে বিশম শহরের সাংলায় চিনা ইঞ্জিনিয়ারদের গাড়ির কনভয়ে ঢুকে পড়ে একটি গাড়ি। তার পরে চিনা নাগরিকদের গাড়িটি লক্ষ্য করে ধাক্কা দেয়। ওই ধাক্কার পরেই বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে যায় চিনা ইঞ্জিনিয়ারদের গাড়িটি। ছিন্নভিন্ন হয়ে যান গাড়িতে থাকা পাঁচ চিনা নাগরিক ও গাড়ির চালক। কনভয়ে থাকা বাকি গাড়িগুলি থমকে যায়। পরে ব্যাপক পুলিশি নিরাপত্তায় ওই গাড়িগুলি দাসুতে পৌঁছে দেওয়া হয়।

Advertisement

পাকিস্তানের বালুচিস্তান ও খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে একাধিক নির্মাণ প্রকল্পের দায়িত্বে রয়েছে চিনা সংস্থাগুলি। যদিও স্থানীয় জঙ্গি সংগঠনগুলি দীর্ঘদিন ধরেই পাততাড়ি গুটিয়ে দেশে ফেরত যাওয়ার জন্য চিনা সংস্থাগুলিকে নির্দেশ দিয়ে আসছে। তবে তাতে কর্ণপাত করেনি ওই সংস্থাগুলি। পরিনামে লাগাতার হামলা চলছে ওই সব প্রকল্পে জড়িত চিনা প্রকৌশলী ও কর্মীদের উপরে। ২০২১ সালে দাসুতেই এক বিস্ফোরণে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল। তাঁদের মধ্যে ন’জন ছিলেন চিনা নাগরিক। কর্মস্থলে যাওয়ার পথে আত্মঘাতী হামলার শিকার হন তারা।

Advertisement
Tags :
Advertisement