For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

অবশেষে স্বস্তি! আন্নু কাপুরের 'হামারে বারাহ' মুক্তির অনুমতি দিল বোম্বে হাইকোর্ট

মুভিটিতে একজন মাওলানা কুরআনের ভুল ব্যাখ্যা করছেন। সেটাই নিয়েই একজন মুসলিম পুরুষ দৃশ্যটিতে আপত্তি জানিয়েছিলেন। তাই এটি দেখায় যে মানুষের উচিত তাদের মন প্রয়োগ করা এবং এই ধরনের মাওলানাদের অন্ধভাবে অনুসরণ করা উচিত নয়
02:17 PM Jun 19, 2024 IST | Susmita
অবশেষে স্বস্তি  আন্নু কাপুরের  হামারে বারাহ  মুক্তির অনুমতি দিল বোম্বে হাইকোর্ট
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: অবশেষে স্বস্তি মিলল আন্নু কাপুরের অভিনীত 'হামারে বারাহ'-র। বুধবার বোম্বে হাইকোর্ট 'হামারে বারাহ'-এর মুক্তির অনুমতি দিয়েছে। আর আদালত ছবির কিছু পরিবর্তনেরও নির্দেশ দিয়েছে, এবং নির্মাতারা রাজি হয়েছেন। 'হামারে বারাহ', সিনেমা হলে মুক্তির কথা ছিল গত ৭ জুন। কিন্তু সুপ্রিমকোর্ট ছবির মুক্তি স্থগিত করে দেওয়ার পরে অবশেষে বোম্বে হাইকোর্ট হামারে বারাহ মুক্তির আদেশ দিয়েছে। ছবিটি আগামী ২১ জুন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। আদালত সূত্রের খবর, বিচার পতি বিপি কোলাবাওয়াল্লা এবং বিচারপতি ফিরদৌস পুনিওয়াল্লার একটি ডিভিশন বেঞ্চ ছবিটির উপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি রিট আবেদনে এই আদেশ দিয়েছে। কারণ ছবিটির বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অপমানের অভিযোগ উঠেছিল।

Advertisement

হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, ছবিটিতে মাত্র ৩টি পরিবর্তন হয়েছে, যার মধ্যে তিনটি বিতর্কিত সংলাপকে মিউট করা হয়েছে, আর চলচ্চিত্রের বাকি দৃশ্য একই থাকবে। বোম্বে হাইকোর্ট ছবিটির কিছু পরিবর্তনের জন্য প্রযোজক সম্মতি দেওয়ার পরে হামারে বরাহ ছবিটির মুক্তির অনুমোদন দিয়েছে। আর আবেদনকারীরাও ছবির বিতর্কিত দৃশ্যগুলি পরিবর্তনের পরে মুক্তির বিষয়ে আপত্তি না জানাতে সম্মত হয়েছেন। ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে যে ছবিটির প্রথম ট্রেলারটি আপত্তিকর ছিল, কিন্তু সেটি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং সিনেমা থেকে এই ধরনের সমস্ত আপত্তিকর দৃশ্য মুছে ফেলা হয়েছে। আদালত উল্লেখ করেছে যে, "এটি আসলে একটি চিন্তামূলক চলচ্চিত্র। তাই দর্শকদের এটা নিয়ে মাথা ঘামানোর দরকার নেই। সিনেমাটি আসলে নারীদের উন্নতির জন্য। মুভিটিতে একজন মাওলানা কুরআনের ভুল ব্যাখ্যা করছেন। সেটাই নিয়েই একজন মুসলিম পুরুষ দৃশ্যটিতে আপত্তি জানিয়েছিলেন। তাই এটি দেখায় যে মানুষের উচিত তাদের মন প্রয়োগ করা এবং এই ধরনের মাওলানাদের অন্ধভাবে অনুসরণ করা উচিত নয়।"

Advertisement

নির্মাতারাও ছবিতে ১২ সেকেন্ডের দুটি দাবিত্যাগ করতে রাজি হয়েছেন। এছাড়া নির্মাতারা আবেদনকারীর পছন্দের একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানকে ৫ লাখ টাকা খরচ দিতেও সম্মত হয়েছেন। উল্লেখ্য, এই মাসের শুরুর দিকে ছবিটির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একগুচ্ছ পিটিশন দাখিল করা হয়েছিল। যে সিনেমাটি মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি অবমাননাকর এবং কুরআন যা বলে তা বিকৃত করেছে। সিনেমাটি নিষিদ্ধ করার জন্যেও দাবি তোলা হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে হাইকোর্ট সিনেমাটির মুক্তি স্থগিত করলেও, নির্মাতারা বলেছিল যে সেন্ট্রাল বোর্ড ফর ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি) দ্বারা নির্দেশিত আপত্তিকর অংশগুলি মুছে ফেলা হবে। তাই পরে এটি মুক্তির অনুমতি দিল বোম্বে হাইকোর্ট। এরপর আবেদনকারীরা সুপ্রিম কোর্টে যান, যা গত সপ্তাহে সিনেমাটির মুক্তি স্থগিত করে এবং হাইকোর্টকে শুনানি করে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার নির্দেশ দেয়। মঙ্গলবার, বিচারপতি কোলাবাওয়াল্লার নেতৃত্বে বেঞ্চ বলেছে যে সমস্ত আপত্তিকর অংশ মুছে ফেলার পরে এতে এমন কিছুই পাওয়া যায়নি যা সহিংসতাকে উস্কে দেবে।

Advertisement
Tags :
Advertisement