For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

হৃদরোগে আক্রান্ত বৃদ্ধাকে ভর্তি করাতে নাকাল মেয়ে, রেফার ৪ হাসপাতালের

৬২ বছরের এক মহিলা হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পরে তাঁর মেয়ে রীতিমত চূড়ান্ত ভোগান্তির মুখে পড়েন হাসপাতালে ভর্তি করাতে গিয়ে।
05:52 PM Nov 25, 2023 IST | Koushik Dey Sarkar
হৃদরোগে আক্রান্ত বৃদ্ধাকে ভর্তি করাতে নাকাল মেয়ে  রেফার ৪ হাসপাতালের
Courtesy - Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) হস্তক্ষেপে এবং হুমকির জেরে রাজ্যে সরকারি হাসপাতালগুলিতে(Government Hospitals) রেফার রোগ কিছুটা হলেও কমেছে। যদিও সেটা যে একদমই বন্ধ হয়ে গিয়েছে তা কিনতি একদমই নয়। খাস কলকাতার(Kolkata) বুকে এক ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল সেই রোগের দাপট এখনও রাজ্যের রাজধানীর বুকে সরকারি হাসপাতালগুলিতে ঠিক কতটা জাঁকিয়ে বসেছে। ৬২ বছরের এক মহিলা হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পরে তাঁর মেয়ে রীতিমত চূড়ান্ত ভোগান্তির মুখে পড়েন হাসপাতালে ভর্তি করাতে গিয়ে। সব থেকে বড় কথা, রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণ স্বরূপ নিগম নিজে ওই বৃদ্ধাকে ভর্তি করাবার উদ্যোগ নিয়েও খুব একটা সফল হননি।

Advertisement

জানা গিয়েছে, ৬২ বছরের ওই মহিলা দক্ষিণ শহরতলির বাসিন্দা। শুক্রবার রাতে তিনি নিজের বাড়িতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তাঁর মেয়ে মরণাপন্ন মা-কে নিয়ে প্রথমে SSKM Hospital-এ যান। কিন্তু সেখানে বেড নেই বলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে ওই বৃদ্ধাকে নিয়ে যাওয়া হয় NRS Medical College and Hospital-এ। সেখানেও ভর্তি করা যায়নি। তার পর নিয়ে যাওয়া হয় R G Kar Medical College and Hospital-এ। সেখানেও বেড নেই বলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এরই মধ্যে খবর যায় রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণ স্বরূপ নিগমের কাছে। তিনি নিজে ওই বৃদ্ধাকে ভর্তির জন্য সচেষ্ট হন। এবারে ওই রোগিনীকে নিয়ে যাওয়া হয় Calcutta Medical College and Hospital-এ। কিন্তু সেখানেও ভর্তি করা হয়নি ওই বৃদ্ধাকে। স্বাস্থ্যসচিবের অনুরোধ সত্ত্বেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেয়, বেড না থাকায় ওই বৃদ্ধাকে ভর্তি করা সম্ভব নয়।

Advertisement

যদিও ওই বৃদ্ধার মেয়ের অভিযোগ, একই সঙ্গে আসা অন্য দুই হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীকে Calcutta Medical College and Hospital-এ ভর্তি নেওয়া হলেও তাঁর মাকে ভর্তি নেয়নি ওই হাসপাতাল। এমনকী প্রাথমিক চিকিৎসাটুকুও মেলেনি। শহরের ৪টি সরকারি হাসপাতাল ঘুরে শেষে মুখ্যসচিবের চেষ্টায় এবং Calcutta Medical College and Hospital’র সহযোগিতায় শনিবার ভোররাতে M R Bangur Hospital-এ ভর্তি করা যায় ওই মহিলাকে। যদিও সেখানে একেবারেই আশ্বস্ত নন মহিলার মেয়ে। কেননা বাঙ্গুরে আলাদা কোনও কার্ডিওলজি বিভাগই নেই। শনি বিকালের খবর, এখনও ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন ওই বৃদ্ধা। তাঁর শারীরিক অবস্থা রীতিমতো সংকটজনক।

Advertisement
Tags :
Advertisement