For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষ বিদায়, উস্তাদ রশিদ খানের মৃত্যুতে মর্মাহত হৈমন্তী, ঊষা

একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমে বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী হৈমন্তী শুক্লা বলেছেন, রশিদের সঙ্গে তাঁর শুধু গানের সম্পর্ক নয়, পারিবারিক সম্পর্কও। প্রতি বছর ভাইফোঁটা নিতেন তিনি তাঁর কাছ থেকে।
02:27 PM Jan 10, 2024 IST | Sushmitaa
পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষ বিদায়  উস্তাদ রশিদ খানের মৃত্যুতে মর্মাহত হৈমন্তী  ঊষা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রয়াত রশিদ খান। ভারতের সঙ্গীত জগতের অমূল্য রত্ন রশিদ খান। মাত্র ৫৫ বয়সেই থেমে গেল তাঁর জীবন প্রদীপ। যিনি এক নিঃশ্বাসে গেয়ে দিতে পারতেন, আজ তিনিই চিরঘুমের দেশে। গতকাল দুপুর ৩:৪৫ মিনিট নাগাদ পিয়ারলেস হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন দেশের অন্যতম শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পী উস্তাদ রশিদ খান। গতকালই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পিয়ারলেস হাসপাতালে দাঁড়িয়ে রশিদ খানের মৃত্যুর কথা ঘোষণা করেছেন। এবং জানিয়েছিলেন আজ দুপুর ১ টা নাগাদ তাঁর মরদেহ রবীন্দ্রসদনে আনা হবে এবং গান স্যালুটে বিদায় জানানো হবে। তাঁর কথামতো তাই হল, দুপুর ১ টা নাগাদ রশিদ খানকে গান স্যালুটে বিদায় জানানো হল। আজ তাঁকে দেখতে রবীন্দ্রসদনে অগণিত ভক্তদের ভিড় জমেছিল। তাঁকে শেষ বিদায় জানাতে রবীন্দ্র সদনে এসেছিলেন বাংলার একাধিক সঙ্গীতশিল্পীরা।

Advertisement

যেমন, হৈমন্তী শুক্লা, ঊষা উত্থূপ-সহ একাধিক শিল্পীরা। আজ সকাল ৯ টা নাগাদ নাকতলার বাড়ি থেকেই শিল্পীর মরদেহ বের করা হয়। এরপর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় রবীন্দ্রসদন। সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, ইন্দ্রনীল সেন-সহ রশিদ খানের পরিবারের লোকেরা। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে গান স্যালুটে বিদায় জানানো হল, রশিদ খানকে। এরপর বাড়িতে ধর্মীয় মতে তাঁর আচার অনুষ্ঠান করা হবে। সাড়ে তিনটার সময় জানাজা হবে। এরপর তাঁর মরদেহ উত্তরপ্রদেশে তাঁর পৈতৃক ভিটেতে নিয়ে যাওয়া হবে। ওখানেই কবর দেওয়া হবে রশিদ খানকে। উস্তাদ রশিদ খানের মৃত্যুতে গুলাম আলি খান একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, 'রশিদ খান শুধু ভারতেরই নয়, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শাস্ত্রীয় শিল্পীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন রশিদ খান। তিনি আমার ভ্রাতৃসম। তিনি চলে গেলেন কিন্তু রেখে গেলেন একাধিক স্মৃতি। দেখা হলেই আমরা খুব গল্প করতাম।'

Advertisement

একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমে বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী হৈমন্তী শুক্লা বলেছেন, রশিদের সঙ্গে তাঁর শুধু গানের সম্পর্ক নয়, পারিবারিক সম্পর্কও। প্রতি বছর ভাইফোঁটা নিতেন তিনি তাঁর কাছ থেকে। তাঁকে বুড়ি বলে ডাকার একমাত্র মানুষ ছিলেন রশিদ খান। তিনি বাংলা ভাষাটা খুব ভালোবাসতেন। বলিউডের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী আদনান সামি প্রয়াত গায়কের ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে লিখেছেন, "আমি এই খবরটি বিশ্বাস করতে পারছি না! আমি খুবই মর্মাহত এবং বাকরুদ্ধ। কী বিশাল ক্ষতি!! একজন প্রতিভাবান সঙ্গীতশিল্পী এবং একজন সুন্দর বন্ধু। আমার গভীরতম তার প্রিয় পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন। আমিন।"

গায়িকা হারশিপ কৌর বলেছেন, "অত্যন্ত দুঃখের খবর। উস্তাদ রশিদ খান জি চলে গেলেন। সঙ্গীত জগতের জন্য এটা এক বিরাট ক্ষতি। সঙ্গীতে শ্রেষ্ঠত্বের জন্য তিনি চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন এবং তাঁর কণ্ঠ চিরকাল আমাদের হৃদয়ে প্রতিধ্বনিত হবে।" অভিনেতা বাঙালি অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, "আমরা একটি রত্ন হারিয়েছি। উস্তাদ রশিদ খানের পরিবার এবং শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আমার আন্তরিক সমবেদনা। সর্বদা জাদুকরী সঙ্গীতের স্মৃতি সংরক্ষণ থাকবে৷"

Advertisement
Tags :
Advertisement