For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

প্রধানমন্ত্রীর গলায় এই সমস্ত চিপ পলিটিকস মানায় না : ফিরহাদ হাকিম

05:21 PM Mar 02, 2024 IST | Subrata Roy
প্রধানমন্ত্রীর গলায় এই সমস্ত চিপ পলিটিকস মানায় না   ফিরহাদ হাকিম
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: বাজেটের পুস্তিকাতে একটা ভুল হয়েছে। যে অ্যাডেড অঞ্চলে ফুয়েল চার্জ ৫০০ টাকা করা হয়েছিল, সেই টাকাকে আমরা তুলে দিচ্ছি। কোথাও ফিস লাগবে না। তাই এটা অ্যাডেড অঞ্চলেও থাকবে না বলে শনিবার কলকাতা পুরস্কার বাতিল সাংবাদিকদের জানান মেয়র। ফিরহাদ হাকিম(Firhad Hakim) আরো বলেন, বিল্ডিং প্ল্যানিং নিয়ে একটা সমস্যা হচ্ছে। যারা ফিজিক্যাল প্ল্যান অনুমোদনের জন্য দিয়েছিল তাদেরকে ফিজিক্যাল প্ল্যান অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে। প্ল্যানের ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা হচ্ছে। যাদের ম্যানুয়াল সি সি নেওয়া হয়েছিল, তাদের কে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে সি সি দেওয়া হবে। অনলাইনে সব দেখা সম্ভব হয় না। তাই এটা ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে হবে বলে জানালেন মেয়র(Mayor)।

Advertisement

তিনি বলেন,আমার এক বন্ধুর সম্পত্তি দখল হয়েছে। বারুইপুরে তাদের সম্পত্তি। আমার থেকে সিনিয়র দাদা তার স্ত্রী থাকেন বৃদ্ধা আশ্রম। যে কেয়ারটেকার ছিলেন সে নিজের নামের করে নিয়েছেন। মেয়র বলেন,যেখানে পে এন্ড ইউজ আছে। তার আসে পাশে বেআইনি ভাবে আছে সেটা ভেঙে দিতে বলা হয়েছে। কারণ অনেক জায়গায় গুটকা খেয়ে ফেলে দিয়ে নোংরা করে দেওয়া হচ্ছে বলে জানান মেয়র।আমরা ডিজিটাল ম্যাপ(Digital Map) করছি নিকাশি বিভাগের। এর সাথে জলের একটা ম্যাপ করা হবে। পরবর্তী কালে যারা আসবে, তারা ডিজিটালাইজড মাধ্যমে ১০০বছর পর কলকাতা ম্যাপ কে জানতে পারবে।আমি একটা জিনিষ বুঝতে পারিনা। বিজেপি ভোটের সময় এই ঢোল কেন বাজায়? আমরা তো মতুয়া দের বলেছি যে আপনারা তো বিদেশি নয়। তাহলে আপনাদের ভোটে যে জন প্রতিনিধি সেও তো বেআইনি হয়ে গেল। সে যে বিল পাস করল সেও বেআইনি হয়ে গেল। মতুয়া কে যদি ক্যান্সেল করতে হয়, তাহলে শান্তনু ঠাকুর ও বেআইনি মন্ত্রী হয়ে গেল। এই ভেদাভেদ কেন হবে আমরা সবাই ভারতীয়। এইগুলোকে নিয়ে কেন ভেদাভেদ হবে।অমিত শাহ বলেছিলেন ৩৫ টি আসন।আগে বলেছিলেন ২০০ পার আবার বলছে ৪০০ পার।

Advertisement

এখনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee) আছে। তিনিই থাকবেন। সামাজিক সংস্কার করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এইসব হচ্ছে প্রচার। বিজেপি যে ১০০০ হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে। মমতা বন্দোপাধ্যায় হচ্ছে সততার প্রতীক। তারা এইসব প্রচারের জন্য বলছে।বাংলায় যদি তোলাবাজ থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে অভিষেক বন্দোপাধ্যায় বলেছিলেন ,সে দোষ করেছে। তাকে শাস্তি দিন। বাংলার মানুষকে কেন বঞ্চিত করছেন ?পাল্টা প্রশ্ন ফিরহাদ হাকিমের। তিনি বলেন,এটা অনেক আগেই সব প্রকল্প হয়েছে। কল্যানী আইমস অনেক আগে হয়েছে। আমি আমি বলা কৃতিত্ব নয়। বলতে হয় আমরা। এই আমি ওনাকে খেয়ে নেবে।প্রধানমন্ত্রী গলায় এই সমস্ত চিপ পলিটিকস মানায় না।যদি অমিত শাহ বলে। থাকে তাহলে সি এ এ তাহলে শান্তনু ঠাকুর বেআইনি মন্ত্রী।আমাদের মানুষ ভোট দেবেন মানুষের মনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রয়েছেন। বাংলার মানুষের বাংলার উন্নয়ন দেখে ভোট দেবে।আমি আগেই বলেছি ওরা কেন্দ্রীয় বাহিনী(Central Force) দিকে তাকিয়ে থাকে নির্বাচন কমিশনের দিকে তাকিয়ে থাকে। আমরা মমতা দিকে তাকিয়ে থাকি। বাংলার মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিকে তাকিয়ে আছে তার উন্নয়নের দিকে তাকিয়ে আছে।

Advertisement
Tags :
Advertisement