For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ক্যাডিলা ফার্মার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে এফআইআর দায়ের

12:35 AM Jan 01, 2024 IST | Sundeep
ক্যাডিলা ফার্মার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে এফআইআর দায়ের
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, আমদাবাদ: দেশের প্রখ্যাত ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ক্যাডিলা ফার্মাসিটিউক্যালসের চেয়ারম্যান-ম্যানেজিং ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে দায়ের হল ধর্ষণ মামলা। গুজরাত হাইকোর্টের নির্দেশে ক্যাডিলার শীর্ষ কর্তা রাজীব মোদির বিরুদ্ধে ধর্ষণ-সহ ভারতীয় ফৌজদারি  দণ্ডবিধির তিন ধারায় মামলা দায়ের করেছে আমদাবাদ পুলিশ। রবিবার এ খবর জানিয়েছেন আমদাবাদ পুলিশের সহকারী কমিশনার হিমাংশু কানসাগরা।

Advertisement

ক্যাডিলা ফার্মাসিটিউক্যালসের চেয়ারম্যান তথা ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাজীব মোদির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছিলেন সংস্থারই কর্মী। অভিযোগকারিণী বুলগেরিয়ান নাগরিক এবং ক্যাডিলায় ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট হিসাবে কর্মরত ছিলেন। প্রথমে সংস্থার চেয়ারম্যান তথা এমডি’র বিরুদ্ধে পুলিশে ধর্ষণের মামলা দায়ের করতে গিয়েছিলেন অভিযোগকারিণী। অভিযোগ ক্যাডিলার শীর্ষ কর্তা রাজীব মোদি ‘বিজেপির ঘনিষ্ঠ’ হওয়ায় ওই অভিযোগ নিতে রাজি হয়নি আমদাবাদ পুলিশ। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তই শুরু করার হিম্ম‍ৎ দেখাতে পারেনি।

Advertisement

পুলিশের ভূমিকায় অসন্তুষ্ট হয়ে গুজরাত হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অভিযোগকারিণী। গত ২২ ডিসেম্বর গুজরাত হাইকোর্টের পক্ষ থেকে আমদাবাদের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশকে এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দেওয়ার কথা জানানো হয়। সেই সঙ্গে একজন সিনিয়র আইপিএস অফিসারের নেতৃত্বে তদন্ত করারও নির্দেশ দেওয়া হয়। হাইকোর্টের নির্দেশের ৯ দিন বাদে আমদাবাদ পুলিশের ‘কুম্ভকর্ণের’ ঘুম ভেঙেছে। রবিবার শোলা থানায় ক্যাডিলা চেয়ারম্যান রাজীব মোদি ও তার অপকর্মের সঙ্গী জনসন ম্যাথুর বিরুদ্ধে ভারতীয় ফৌজদারি দণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩৫৪ এবং ৫০৪ ধারায় এফআইআর রুজু করেছে। তবে মামলা রুজু করার কথা জানানো হলেও তদন্তের বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি আমদাবাদ পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকরা। বিষয়টি বিবেচনাধীন বলে তদন্ত নিয়ে একাধিক প্রশ্নের জবাব এড়িয়েছেন।

Advertisement
Tags :
Advertisement