For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা কতটা গুরুত্বপূর্ণ, ২ লাইনে বর্ণনা ক্ষুদের, চোখ কপালে নেটমহলের

বাচ্চাটির এত কথা শুনে যখন নেহা কক্কর বললেন, 'তুমি বলত ভগবৎ গীতা কেন আমাদের দরকার হয়?' তখন বাচ্চাটি বলে, 'আমি আপনাকে একটা উদাহরণ দিচ্ছি। আমরা বাজার থেকে কোনও ইলেকট্রনিক খেলনা কিনি।
06:04 PM Mar 09, 2024 IST | Sushmitaa
শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা কতটা গুরুত্বপূর্ণ  ২ লাইনে বর্ণনা ক্ষুদের  চোখ কপালে নেটমহলের
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কথায় আছে না, ভগবান আছে মানুষের মধ্যেই। তাই মানুষকে সেবা করলেই সাক্ষাত ভগবানের দর্শন মিলবে। এবার তেমনই সাক্ষাত ভগবান শ্রীকৃষ্ণের দেখা মিলল 'সুপারস্টার সিঙ্গার ৩' এ। 'ইন্ডিয়ান আইডল' শেষ হয়ে সদ্য শুরু হয়েছে দেশের আরেক জনপ্রিয় মিউজিক্যাল রিয়েলিটি শো 'সুপারস্টার সিঙ্গার ৩'। যেখানে প্রধান বিচারকের আসনে রয়েছেন বলিউডের রিমেক কুইন নেহা কক্কর। আর মেন্টরের আসনে রয়েছেন ইন্ডিয়ান আইডলের ১২ সিজনের বিজেতা পবনদ্বীপ, অরুণিতা কাঞ্চিলাল-সহ আরও একাধিক ইন্ডিয়ান আইডলের টপ প্রতিযোগী। সনি চ্যানেলে সম্প্রচারিত এই শোয়ে অংশগ্রহণ করতে আসছেন দেশের কোণে কোণে থেকে সব প্রতিযোগিরা। নেই কোনও বয়সের সীমা।

Advertisement

৮ থেকে ৮০ সকলেই এই শোয়ে অংশগ্রহণ করতে পারবে। চলছে অডিশন পর্ব। সেখান থেকেই সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে একটি ক্ষুদের ভিডিও। যা কিনা রীতিমতো থমকে দিয়েছে গোটা সোশ্যাল মিডিয়াকে। চমকে গিয়েছেন শোয়ের বিচারকমণ্ডলীও। কিন্তু কী এমন হয়েছে? ক্ষুদে প্রতিযোগীর নাম ভাগবত দাস ব্রহ্মচারী। দেখতেও একেবারে ফুটফুটে ব্রহ্মচারীর মতো সে। বোঝাই যাচ্ছে, ছোটবেলা থেকেই ভক্তিপূর্ণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছে। যারা শ্রীকৃষ্ণের ভক্ত। তাঁর বাবা মাও কৃষ্ণভক্ত। প্রথমে পবনদ্বীপের কোলে চড়ে সে মঞ্চে আসে। তাঁর পরনে ছিল গেরুয়া ধুতি ও পাঞ্জাবী। প্রথমে তাঁকে দেখেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠলেন খোদ নেহা কক্কর। এরপর তাঁর মুখ থেকে শ্রীকৃষ্ণের একাধিক বাক্য শুনে রীতিমতো চমকে গেলেন সবাই। মাত্র ৫ বছর বয়সেই ভগবানের বিষয়ে তাঁর এত জ্ঞান শুনে মুগ্ধ হল সবাই। তবে শেষে সে যেটা বলল তাতে রীতিমতো চমকে গেলেন সকলে।

Advertisement

বাচ্চাটির এত কথা শুনে যখন নেহা কক্কর বললেন, 'তুমি বলত শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা কেন আমাদের দরকার হয়?' তখন বাচ্চাটি বলে, 'আমি আপনাকে একটা উদাহরণ দিচ্ছি। আমরা বাজার থেকে কোনও ইলেকট্রনিক খেলনা কিনি। সেই খেলনাটা কীভাবে চলবে তার জন্যে একটি ম্যানুয়াল থাকে। যাতে লেখা থাকে খেলনাটা কীভাবে চলবে? তেমনি শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা আমাদের জীবনের ম্যানুয়াল, যা আমরা কীভাবে চলব সেই বিষয়টা দেখিয়ে দেয়'! একদম বড়দের মতো করে এক কথায় শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা নিয়ে যে বাণী দিল বাচ্চাটি, তাতে কিছুক্ষনের জন্যে রীতিমতো থমকে গেল শোটি। সবাই উঠে বাচ্চাটির প্রশংসা করতে লাগল। আর নেহা কক্কর তো বাচ্চাটিকে নিজের স্ত্রীকে কাছে ডেকে আদরে ভরিয়ে দিল। ভিডিওটি এখন ভাইরাল। এটুকু বয়সে বিস্ময়কর বালকটি ১ মিনিট যে শিক্ষা দিয়ে দিল দর্শকদের, তাতে কিনা কেউই বাচ্চাটির প্রশংসা না করে কেউ থাকতেই পারছেন না।

উল্লেখ্য, ভগবদ্গীতা বা শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা সাতশত শ্লোকের হিন্দুদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ। তাই একে সপ্তশতী বলা হয়। এটি সংস্কৃত মহাকাব্য মহাভারত-এর অংশ। এটি ভীষ্মপর্ব নামে মহাভারতের ষষ্ঠ পুস্তকের ২৩-৪০ অধ্যায় গঠন করে। কূর্মপুরাণের উপরিভাগ অনুসারে সত্যযুগে শিব সর্বপ্রথম ঈশ্বরগীতা প্রদান করেছিলেন, সেই গীতার‌ই বক্তব্য দ্বাপর শ্রীকৃষ্ণ অর্জুনকে বলেছিলেন, যা ভগবদ্গীতা নামে পরিচিত। এই গ্রন্থটি খ্রিস্টপূর্ব প্রথম সহস্রাব্দের দ্বিতীয়ার্ধে রচিত। গীতা স্বতন্ত্র ধর্মগ্রন্থ তথা পৃথক শাস্ত্র এর মর্যাদা পেয়ে থাকে। গীতার কথক কৃষ্ণ হিন্দুদের দৃষ্টিতে ঈশ্বরের অবতার পরমাত্মা স্বয়ং। তাই গীতায় তাঁকে বলা হয়েছে "শ্রীভগবান"।

Advertisement
Tags :
Advertisement