For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া হাওড়ার চ্যাটার্জি হাটে, ৪ দিন ধরে পচল মায়ের দেহ, নির্বিকার মেয়ে

06:42 PM Jul 10, 2024 IST | Subrata Roy
রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া হাওড়ার চ্যাটার্জি হাটে  ৪ দিন ধরে পচল মায়ের দেহ  নির্বিকার মেয়ে
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি,হাওড়া: কলকাতার রবিন সন স্ট্রিটের ছায়া এবার হাওড়ায়। এক ঘরে মায়ের মৃতদেহ পচন ধরেছে চার দিন ধরে। ঠিক তার পাশের ঘরে এসি চালিয়ে ঘুমাচ্ছে মেয়ে । চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়া চ্যাটার্জিহাট থানার(ChatterjeeHat P.S.) অন্তর্গত তাঁতি পাড়া লেনে। মৃতার নাম মিনতি মুখার্জী(Minati Mukherjee) ।বছর ৭০ বয়স। মেয়ে কাকলি মুখার্জিকে(Kakali Mukherjee) নিয়ে একই বাড়িতে থাকতেন মিনতি দেবী। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, দুজনেই মানসিক ভারসাম্যহীন । বুধবার সকালে ঘর থেকে পচা গন্ধ বেরোতে থাকে। গন্ধ পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেয় পুলিশকে। দরজা ভেঙে উদ্ধার করা হয় মিনতি দেবীর পচা গলা দেহ। মেয়ের খোঁজ করতে গিয়ে দেখা যায় পাশের ঘরে এসি চালিয়ে ঘুমোচ্ছে মেয়ে কাকলি। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে ।

Advertisement

মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েকেও উদ্ধার করে পাঠানো হয়েছে হাওড়া হাসপাতালে। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য অনুযায়ী ওই বাড়িতে একটি কাজের মেয়ে সমস্ত জিনিসপত্র এনে দিত। রবিবার সে শেষবারের মতো জিনিসপত্র এনে দিয়েছিল। কিন্তু সোম ও মঙ্গলবার পরপর দুদিন এসে দরজা বন্ধ দেখে ফিরে যায় সে। এরপর বিষয়টি ওই মেয়েটি বাসিন্দাদের জানায়। বাসিন্দারা খোঁজখবর নিতে এসে পচা বন্ধ পায়। এরপরই পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। মায়ের মৃতদেহ যখন একটি ঘরে পচন ধরেছে সেই সময়ের পাশের ঘরে এসি চালিয়ে মেয়ে নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছে ।

Advertisement

এই ঘটনা দেখে হতবাক হয়ে যায় পুলিশ অফিসাররা। পচা দুর্গন্ধে যখন মো মো করছে গোটা বাড়ি এই সময় কোন হেলদোল নেই মেয়ের মধ্যে। ক্রমাগত এই ধরনের ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ায় মনস্তত্ত্ববিদরা মনে করছেন বর্তমান সামাজিক নানা কারণে একাকিত্ব পরিবার গুলি এক প্রকার মানসিক ভারসাম্যহীন। হয়ে চলেছে ক্রমাগত। সেখানে কাচের মানুষকে হারানোর ব্যথা অনুভূত হচ্ছে না তাদের মধ্যে।

Advertisement
Tags :
Advertisement