For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

‘আমি সম্পূর্ণ সুস্থ, দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই’, আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজের অসুস্থতা নিয়ে যাবতীয় জল্পনা কল্পনা রটনা নস্যাৎ করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেটাও আবার গঙ্গাসাগরে দাঁড়িয়ে।
03:47 PM Jan 08, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
‘আমি সম্পূর্ণ সুস্থ  দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই’  আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী
Courtesy - Facebook
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিরোধীদের দাবি, তিনি খুবই অসুস্থ। নানা সংবাদমাধ্যমেও দাবি করা হয়েছিল, তাঁর অসুস্থতার কথা। বলা হচ্ছিল শুধুমাত্র মনের জোরে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। এদিন অর্থাৎ ৮ জানুয়ারি এই সব কিছুকে তিনি নস্যাৎ করে দিলেন গঙ্গাসাগরের মাটিতে দাঁড়িয়ে সাফ জানালেন, ‘আমি সম্পূর্ন সুস্থ আছি। সমস্ত অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছি। অকারণে দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই। আমি আজকে এখানে এসেছি। কালকে জয়নগর যাব তার পর বাবুঘাটে যাব। পর পর প্রোগ্রাম আছে। অতএব আমার স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই। শুধু একটু ঠান্ডা লেগেছে। এটা শীত কালে লেগেই থাকে। এটা কোনও ব্যাপার নয়।’ নজরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। এদিনই তিনি ২ দিনের সফরে দক্ষিণ ২৪ পরগনা(South 24 Pargana) গিয়েছেন। তাঁর সফর শুরু হচ্ছে গঙ্গাসাগর(Gangasagar) দিয়ে। আগামিকাল তাঁর কর্মসূচী থাকছে জয়নগরের(Joynagar) বুকে।

Advertisement

এদিন দুপুরে হেলিকপ্টারে করেই গঙ্গাসাগরে পৌঁছে যান মুখ্যমন্ত্রী। তারপর সেখানে সাগর ব্লকের জন্য একটি পানীয় জল প্রকল্পের উদ্বোধন সেরে সোজা চলে যান ভারত সেবাশ্রম সংঘে(Bharat Sevasram Sangha)। সেখানে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর একটি প্রকল্পের উদ্বোধন করে মন্দিরে পুজোও দেন। সেখান থেকে বেড়িয়ে আসার সময় তিনি জানান, ‘আগে যখন গঙ্গাসাগরে আসতাম, কিছুই ছিল না, সব ভোঁ ভা। এখন গঙ্গাসাগরে সব সেট-আপ তৈরি হয়েছে। মেলার চেহারাই পাল্টে গিয়েছে। অনেকেই চেষ্টা করছেন এই মেলা নিয়ে একটা অশান্তি ছড়িয়ে দিতে। আমি বলবো কারও প্ররোচনায় পা দেবেন না। লক্ষ্য রাখবেন, ছোট খাটো কোনও ঘটনাকে গিয়ে যেন উত্তেজনা না ছড়ায়। কেউ কোনও প্ররোচনায় পা দিলেও আপনারা ছড়াতে দেবেন না। আমি মনে করি যেখানে ৮০ লাখ-৯০ লাখ মানুষ আসেন, সেখানে মানুষের নিরাপত্তাটা সবচেয়ে বড়। একটা খবরকে কেন্দ্র করে অনেক সময় পদপিষ্টও হয়ে যায়।’

Advertisement

Advertisement
Tags :
Advertisement