For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

একদিনের বিশ্বকাপের পর যুব বিশ্বকাপেও হারল ভারত

09:04 PM Feb 11, 2024 IST | Mainak Das
একদিনের বিশ্বকাপের পর যুব বিশ্বকাপেও হারল ভারত
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি : এবারেও স্বপ্নপূরণ হল না। অনুর্ধ ১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালেও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হার মানতে হল ভারতকে। একদিনের বিশ্বকাপের পর এবার যুব বিশ্বকাপেও হার মানল উদয় শরণরা। ৭৯ রানে জিতল অস্ট্রেলিয়া।

Advertisement

২৫৪ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে একের পর এক উইকেট খুইয়ে চাপে পড়ে যায় ভারত। রান তাড়া করতে গিয়ে এদিন প্রথম থেকেই উইকেটের পতন হতে শুরু করে। ক্রিজে বেশ কিছুক্ষণ মাটি আঁকড়ে পড়ে থাকেন আদর্শ সিং। আদর্শের সঙ্গে মুশির খান কিছুটা সঙ্গত দিলেও বেশিক্ষণ ক্রিজে টেকেননি মুশির। ব্যক্তিগত ২২ রান করে আউট হয়ে যান তিনি।এরপর ৪৭ রানের মাথায় আউট হয়ে যান আদর্শ সিং। ১১৫ রানের মাথাতেই সাত উইকেট পড়ে যায়। এরপর শূন্য রানে আউট হয়ে যান রাজ লিম্বানি। ১২৮ রানে আট উইকেট পড়ে যায় ভারতের। মুরুগান অভিষেক নমন তিওয়ারিকে নিয়ে শেষ চেষ্টা চালিয়েছিলেন। কিন্তু পারলেন না। ব্যক্তিগত ৪২ রানের মাথায় ভিডলারের বলে আউট হয়ে যান অভিষেক। নমন তিওয়ারি মহলি ব্রেডম্যান ও রাফ ম্যাকমিলন তিনটি করে উইকেট নেন। পাশাপাশি ক্যালাম ভিডলার দুই উইকেট ও চার্লি অ্যান্ডারসন একটি উইকেট পান। ১৭৪ রানে শেষ হয়ে গেল ভারতের ইনিংস।

Advertisement

এদিন টসে জিতে ব্যাট করতে শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। শুরুতেই হোঁচট খায় অস্ট্রেলিয়া। শূন্য রানে স্যাম কনস্টাস আউট হয়ে যায়। এরপর হ্যারি ডিক্সন ও হিউ ওয়েবগেন জুটি বাঁধে। দুজনের মধ্যে ৭৮ রানের জুটি বাঁধল নমন তিওয়ারি। ব্যক্তিগত ৪৮ রানের মাথায় ওয়েবগেনকে আউট করেন তিওয়ারি। এরপর অস্ট্রেলিয়াকে ফের ধাক্কা দিলেন তিওয়ারি। ব্যক্তিগত ৪২ রানের মাথায় ডিক্সনকে আউট করেন তিনি। একশ রানের মধ্যে তিন উইকেট পড়ে যায়। এরপর ম্যাচের রাশ টেনে ধরেন হরজস সিং। প্রথমে রায়ানের সঙ্গে জুটি বাঁধেন হরজস। মাত্র ২০ রানের মাথায় আউট হয়ে যান রায়ান। এরপর কিছুক্ষণের মধ্যেই অর্ধশতরান করেন হরজস। ৫৯ বলে অর্ধশতরান করেন তিনি। এরপরে অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি হরজস। সৌমি পাণ্ডের বলে আউট হয়ে যান হরজস। দলগত ১৮১ রানের মধ্যেই পাঁচ উইকেট পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার। হারজস আউট হওয়ার পর রাফ ম্যাকমিলানের উইকেট হারায় অজিরা। রাফকে আউট করলেন মুশির খান। এরপর অলিভার পিক ও অ্যান্ডারসন জুটি বাঁধার চেষ্টা করেন। কিন্তু সেই জুটি অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেনি। ব্যক্তিগত ১৩ রানের মাথায় আউট হয়ে যান চার্লি অ্যান্ডারসন। লিম্বানির বলে আউট হয়ে যান অ্যান্ডারসন। অলিভার পিক টম স্ট্রেকারকে সঙ্গে নিয়ে অজিদের ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। অস্ট্রেলিয়ার সপ্তম উইকেটের পতন হয় ২২১ রানের মাথায়। শেষ পর্যন্ত ২৫৩ রানে শেষ হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস।

Advertisement
Tags :
Advertisement