For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে যেতে ভারতের চাই ২৪৫ রান

05:09 PM Feb 06, 2024 IST | Sundeep
যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে যেতে ভারতের চাই ২৪৫ রান
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: লুহান প্রেটোরিয়াস আর রিচার্ড সেলেটসওয়ানের জোড়া অর্ধশতরানের দৌলতে ভারতকে বড় রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা। মঙ্গলবার  অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে প্রথমে ব্যাট করে ৭ উইকেট খুঁইয়ে ২৪৪ রান তুলেছে প্রোটিয়ারা। ভারতের পক্ষে রাজ লিম্বানি ৬০ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন। আর যার উপরে বিশেষ ভরসা করা হয়েছিল সেই মুশির খান বল হাতে চমক দেখাতে পারেননি। ১০ ওভার বল করে ৪৩ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

Advertisement

টসে জিতে এদিন প্রথমে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ব্যাট করতে পাঠান ভারত অধিনায়ক উদয় সাহারান। দেখেশুনেই খেলতে শুরু করেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার লুহান প্রেটোরিয়াস ও স্টিভ স্টোল্ক। পঞ্চম ওভারে প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরে ধাক্কা দেন রাজ লিম্বানি। সাজঘরে ফেরান স্টিভকে (১৪)। এর পর একাই ভারতীয় বোলারদের আক্রমণ সামাল দেওয়ার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন লুহান। শূন্য রানে ডেভিড টিগারকে ফিরিয়ে ফের ধাক্কা দেন লিম্বানি। তার পরে তৃতীয় উইকেটে জুটি বেঁধে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান লুহান ও রিচার্ড সেলেটসওয়ানে। ভারতীয় বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করেন দুজনে। জুটি বেঁধে ৭২ রান যোগ করেন দুজনে। নিজের অর্ধশতরানও পূর্ণ করেন লুহান। ৩১তম ওভারে বল করতে এসে লুহানকে (৭৪) ফিরিয়ে দলকে ব্রেক থ্রু এনে দেন মুশির খান।

Advertisement

লুহান ফিরে যাওয়ার পর দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন রিচার্ড। তাঁকে খানিকটা সহযোগিতা করেন অলিভার হোয়াইটহেড ও অধিনায়ক জুয়ান জেমস। ৪০তম ওভারে হোয়াইটহেডকে (২২) ফিরিয়ে দেন মুশির। দেওয়ান মারাইস (৩) খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। ৬৪ রান করে নমন তিওয়ারির বলে সাজঘরে ফেরেন রিচার্ড। যদিও ততক্ষণে দক্ষিণ আফ্রিকা ২০০ রানের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে।

রিচার্ড আউট হওয়ার খানিকবাদে রাজ লিম্বানির বলে সাজঘরে ফেরেন প্রোটিয়া অধিনায়ক জুয়ান জেমস (২৪)। ৯ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে মারমুখী মেজাজে খেলে দলকে ২৪৪ রানে পৌঁছে দেন ত্রিস্তান লুস। শেষ পর্যন্ত ১২ বলে ২৩ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। অন্য প্রান্তে রিলে নর্টন ৭ বলে ৭ রানে অপরাজিত থাকেন।

Advertisement
Tags :
Advertisement