For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ইন্দোনেশিয়ার মাউন্ট মারাপির অগ্ন্যুৎপাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২

06:43 PM Dec 05, 2023 IST | Ayantika Saha
ইন্দোনেশিয়ার মাউন্ট মারাপির অগ্ন্যুৎপাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২
Curtesy; Google
Advertisement

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম সুমাত্রার মাউন্ট মারাপির আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২ জনে। নিখোঁজ পর্বতারোহীদের খুঁজে বের করার জন্য শত শত উদ্ধারকর্মী কয়েক দিন ধরে কাজ করেছেন। নিখোঁজ ১০ জনের মধ্যে নয়জনকে আজ বিকেলে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে এবং তাদের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

Advertisement

উদ্ধারকারী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কয়েক দিন ধরে মৃতদেহগুলো বডিব্যাগে করে পাহাড়ের নিচে নিয়ে যাওয়া হয়। কমলা রঙের জ্যাকেট ও শক্ত টুপি পরিহিত ছয় জনের একটি উদ্ধারকারী দল মঙ্গলবার আগ্নেয়গিরির পাশ দিয়ে একটি লাশ বহন করছে। অগ্ন্যুৎপাতের সময় পাহাড়ে থাকা ৭৫ জন পর্বতারোহীর মধ্যে কয়েকজনকে জীবিত পাওয়া যায় এবং তাদের নীচে নামিয়ে আনা হয়। বেঁচে যাওয়া একজন অগ্ন্যুৎপাত শুরু হওয়ার পরে তার আতঙ্কের কথা বলেছিলেন।

Advertisement

মারাপি মনিটরিং প্রধান আহমাদ রিফান্দি মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, "মারাপি এখনও খুব সক্রিয়। আমরা কলামের উচ্চতা দেখতে পাচ্ছি না কারণ এটি মেঘ দ্বারা আচ্ছাদিত।"

প্রসঙ্গত, ২ ডিসেম্বর পশ্চিম সুমাত্রার এই আগ্নেয়গিরি থেকে হঠাৎ অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়। ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, আগ্নেয়গিরির ছাইয়ে আকাশ ছেয়ে গেছে। এছাড়াও আশপাশের গাড়ি ও রাস্তাগুলোও ছাইয়ে ঢেকে যেতে গেছে। সেই সময় ওই পাহাড়ে মোট ৭৫ জন পর্বতারোহী ছিলেন। ওই দিন ১৪ জনকে খুঁজে পেয়েছে উদ্ধারকারী দল। আজ আরও কয়েকজনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে।

প্রশান্ত মহাসাগরের ‘রিং অব ফায়ার’-এ অবস্থিত ইন্দোনেশিয়ায় ১২৭টি আগ্নেয়গিরি সক্রিয় রয়েছে। মাউন্ট মারাপি বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ার চার স্তরের সতর্কতা স্কেলের দ্বিতীয় স্তরে আছে। এটি সুমাত্রার সবচেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরিগুলোর মধ্যে একটি।

Advertisement
Tags :
Advertisement