For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

আরও সাত মাস যুদ্ধ চলতে পারে গাজায়, জানিয়েছে ইজরায়েল

02:25 PM May 30, 2024 IST | Reshmi Khatun
আরও সাত মাস যুদ্ধ চলতে পারে গাজায়  জানিয়েছে ইজরায়েল
courtesy google
Advertisement

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গাজায় একের পর এক টানা ইজরায়েলের অবিরাম হামলার সাত মাস পেরিয়ে গেছে। কিন্তু আজ অবধি থামার কোন লক্ষণই নেই। কোন কিছুই তোয়াক্কা না করেই ভয়াবহ হামলা চালাচ্ছেন ইজরায়েল। এই হামলা আর কতদিন চলবে এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন ইজরায়েলের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জাচি হানেবি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন,যুদ্ধ চলতে পারে আরও সাত মাস।

Advertisement

অর্থাৎ এই হামলা চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত চলতে পারে। বুধবার(২৯ই মে)ইজরায়েলের সম্প্রচারমাধ্যম কানে জাচি হানেবির সাক্ষাৎকার সামনে আসে যাতে তিনি জানিয়েছেন,  ‘হামাস ও প্যালেস্টাইন ইসলামিক জিহাদের (পিআইজে) সামরিক ও শাসন করার সক্ষমতা পুরোপুরি ধ্বংস করতে আমরা আরও সাত মাস লড়াই চালিয়ে যাওয়ার আশা করছি।’

Advertisement

শুধু তাই নয় জাচি হানেবি জানিয়েছেন , আন্তর্জাতিক মহলে কোন সঙ্গ পাচ্ছেন না। আট মাসের কাছাকাছি ধরে চলা এই যুদ্ধের জেরে আন্তর্জাতিক মহলে ক্রমেই একা হয়ে পড়ছে ইজরায়েল। এমনকী তিনি এও জানিয়েছেন গাজায় বেসামরিক মানুষের প্রাণহানি বেড়ে যাওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রসহ প্রধান মিত্ররা ইজরায়েলের প্রতি ক্ষোভ জানাতে শুরু করেছে।

উল্লেখ্য হামাসের হামলার পর থেকে ইজরায়েল গাজা উপত্যকায় অবিরাম বিমান ও স্থল হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ইজরায়েলি এই হামলায় হাসপাতাল, স্কুল, শরণার্থী শিবির, মসজিদ, গির্জাসহ হাজার হাজার ভবন ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়ে গেছে। এছাড়া ইজরায়েলি আগ্রাসনের কারণে প্রায় ২০ লক্ষের বেশি বাসিন্দা তাদের বাড়িঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। আত্মীয়স্বজন, পরিবার, পরিজন হারিয়ে আজ তাঁরা বাস্তচ্যুত। থাকার ঠিক নেই। খাওয়ার ঠিক নেই। অনাহারে, বিনা চিকিৎসায় দিন কাটছে তাঁদের। এমনকী তাঁদের একমাত্র সম্বল ত্রানটুকুও কেড়ে নিচ্ছে ইজরায়েল। প্রতি মুহূর্তে আতঙ্কে থাকছে তাঁরা। এই বুঝি হামলায় মৃত্যু যন্ত্রণার চিৎকার ভেসে এল।নারী ও শিশুদের কঙ্কালে পরিণত হয়েছে গোটা গাজা।

জাতিসংঘের মতে, ইজরায়েলের বর্বর আক্রমণের কারণে গাজার প্রায় ৮৫ শতাংশ ফিলিস্তিনি বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। আর খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি এবং ওষুধের তীব্র সংকটের মধ্যে গাজার সকলেই এখন খাদ্য নিরাপত্তাহীন অবস্থার মধ্যে রয়েছেন।

Advertisement
Tags :
Advertisement