For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিলেন জগদীশ চন্দ্র বাসুনিয়া বর্মা, ভোট হবে বাকি ৬ কেন্দ্রে, শুরু জল্পনা

সোমবার রাজ্য বিধানসভা ভবনে এসে অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে বিধায়ক পদ থেকে নিজের ইস্তফা পত্র জমা দেন জগদীশ।
04:53 PM Jun 10, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিলেন জগদীশ চন্দ্র বাসুনিয়া বর্মা  ভোট হবে বাকি ৬ কেন্দ্রে  শুরু জল্পনা
Courtesy - Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: একুশের ভোটে কোচবিহার জেলার(Coachbehar District) সিতাই বিধানসভা(Sitai Assembly) কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের(TMC MLA) প্রতীকে জয়ী হন জগদীশ চন্দ্র বসুনিয়া বর্মা(Jagdish Chandra Basunia Burma)। অসম ও রাজবংশী দুই ধারার পারিবারিক যোগসূত্র থাকা সেই জগদীশকেই এবার লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র থেকে দলের প্রার্থী করে তৃণমূল। ভোটের রেজাল্ট বলছে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রমাণিককে হারিয়ে জগদীশ হয়ে উঠেছেন Giant Killer। নিয়মানুসারে সাংসদ ও বিধায়ক দুটি পদ একসঙ্গে রাখা যায় না। ৬ মাসের মধ্যে যে কোনও একটি পদ থেকে ইস্তফা দিতে হয়। সেই নিয়ম মেনে এদিন অর্থাৎ সোমবার রাজ্য বিধানসভা ভবনে এসে অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে বিধায়ক পদ থেকে নিজের ইস্তফা পত্র জমা দেন জগদীশ। তবে ঘটনা যে, জগদীশ ছাড়া এখনও রাজ্যের ৫ বিধায়ককে ইস্তফা দিতে হবে তাঁদের বিধায়ক পদ থেকে। কেননা তাঁরা প্রত্যেকেই এখন সাংসদ। এই ৫জন হলেন মাদারিহাটের বিজেপি বিধায়ক মনোজ টিগ্গা, নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, হাড়োয়ার বিধায়ক হাজি নুরুল ইসলাম, মেদিনীপুরের বিধায়ক জুন মালিয়া এবং তালডাংরার বিধায়ক অরূপ চক্রবর্তী।

Advertisement

নিয়মানুসারে কোনও বিধানসভা কেন্দ্রের আসন ফাঁকা হলে নির্বাচন কমিশন সেখানে ৬ মাসের মধ্যে নির্বাচন ক্রাতে বাধ্য, যদি না সেই আসন ঘিরে কোনও আইনি বা নির্বাচনী জটিলতা না থাকে। এদিন কমিশন কলকাতার মানিকতলা, উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ, নদিয়ার রানাঘাট দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাগদা বিধান্মসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের কথা ঘোষণা করেছে। এই ৪টি কেন্দ্রে ভোট হবে আগামী ১০ জুলাই। ফলাফল ঘোষণা করা হবে ১৩ জুলাই। কিন্তু রাজ্যের বাকি ৬টি বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন কবে হবে তা এখনও অজানা। কেননা সেই ৬ কেন্দ্রের বিধায়কেরা ইস্তফা পত্র না দিলে সেই আসন ফাঁকা বলে চিহ্নিত হবে। এদিন জগদীশচন্দ্র বসুনিয়া সিতাই বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ায় সেই আসনটি ফাঁকা হয়ে গেল। কিন্তু বাকি ৫টি আসনের বিধায়কেরা ইস্তফা না দিলে সেখানে উপনির্বাচন হবে না। তবে মনে করা হচ্ছে, চলতি মাসেই ওই ৫ আসনের ৫ বিধায়ক তাঁদের ইস্তফা পত্র জমা দেবেন এবং জুলাই মাসেই শেষ দিকে ওই ৬ বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হতে পারে।  

Advertisement

Advertisement
Tags :
Advertisement