For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

জঙ্গলমহলে শীতের দুপুরে কচিকাঁচাদের নিয়ে পুলিশের বনভোজন

06:01 PM Dec 17, 2023 IST | Subrata Roy
জঙ্গলমহলে শীতের দুপুরে কচিকাঁচাদের নিয়ে পুলিশের বনভোজন
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি,ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম পুলিশের উদ্যোগে রবিবার জঙ্গলমহলের কচিকাঁচাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হল বনভোজন। জেলা পুলিশের দিশা কোচিং সেন্টারের সঙ্গে যুক্ত ৩৮১ জন পড়ুয়া, শিক্ষক শিক্ষিকা ও অভিভাবকদের নিয়ে এই বনভোজন(Picnic) অনুষ্ঠিত হয়। ইতিমধ্যেই জঙ্গলমহলে তাপমাত্রার পারদের ছন্দপতন ঘটতে শুরু করেছে। শুরু হয়ে গিয়েছে শীতের রোদ্দুর গায়ে মেখে বনভোজনের পালা। রবিবার বেলিয়াবেড়া থানা এলাকার চারটি স্পটে এই বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়। বেলিয়াবেড়া থানা এলাকার গুড়মা, ভাখুক খুলিয়া, গোহালমারা ও চন্ডিয়াস পার্ক এলাকায় এই বনভোজন স্পটগুলি দায়িত্বে ছিলেন বেলিয়াবেড়া থানার ওসি সুদীপ পালোধি স্বয়ং।

Advertisement

সকালে কেক ও টিফিনের পাশাপাশি, দুপুরে পেট পুরে খাওয়ানো হয় মুরগির মাংস, ভাত, তরকারি, চাটনি, পাঁপড় সহ একাধিক লোভনীয় খাবার। এই খাবারগুলি পরিবেশন করে থানার অফিসাররা সহ সিভিক ভলেন্টিয়াররা। জঙ্গলমহলে শীতে দরিদ্র মানুষজনকে শীতবস্ত্র ও কম্বল প্রদান করার পাশাপাশি কখনো পুষ্টিকর খাবার কখনো মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের কোচিং কিংবা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় বসার সুযোগ করে দিতে বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে প্রশাসন। মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে বই- খাতা সহ এবং ক্ষুদে খেলোয়াড়দের খেলার উপকরণ একাধিকবার বিনামূল্যে তুলে দেওয়া হয় বেলিয়াবেড়া থানার ওসি' র(OC) পক্ষ থেকে। জঙ্গলমহলে(Jangalmahal) হতদরিদ্র মানুষগুলির পাশে আপদে-বিপদে থেকে সেখানকার প্রশাসন এই বার্তাই দিতে চাইছে যে তারা প্রকৃতই দুষ্টের দমন এবং শৃষ্টের পালনে ব্রতী।

Advertisement

এক সময় জঙ্গলমহলের যে গ্রামগুলিতে গামছায় ঢাকা মুখগুলি দাপিয়ে বেড়াত, পরিবর্তনের বাংলায় সেখানে মানুষজন এখন শান্তিতে বসবাস করছে। উধাও সেই আতঙ্ক। ঘরের ছেলেমেয়েদের মাও(Mao) স্কোয়াডে নথি ভুক্ত করার নেই হুমকি।আর সেই মানুষগুলি পরিবারগুলিকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে আগামী প্রজন্মকে গড়ে তোলার ঘর নিয়েছেন বেলিয়াবেড়া থানার ওসি সুদীপ পালোধি। ডিসেম্বরের শীতের দুপুরে থানা ছেড়ে কচিকাঁচাদের মাঝে সময় কাটালেন বেলিয়াবেড়া থানার ওসি। পুলিশকে অভিভাবক হিসেবে পেয়ে খুশি জঙ্গলমহলের আগামী প্রজন্ম।

Advertisement
Tags :
Advertisement