For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ছেলেধরা সন্দেহে কৈখালীতে গণপ্রহার, উদ্ধার করতে গিয়ে জনরোষের মুখে পুলিশ

09:34 PM Jul 09, 2024 IST | Subrata Roy
ছেলেধরা সন্দেহে কৈখালীতে গণপ্রহার  উদ্ধার করতে গিয়ে জনরোষের মুখে পুলিশ
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, এয়ারপোর্ট: আবার ছেলে ধরা সন্দেহে মারধর। এবার ঘটনাস্থল কলকাতার উপকণ্ঠে এয়ারপোর্ট সংলগ্ন কৈখালীতে(Kaikhali)। পরে পুলিশ এসে জনরোষ থেকে দুজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ছেলে ধরা সন্দেহে আটক দুজনকে উদ্ধার করতে গিয়ে জনরোষের মুখে পড়ে এয়ারপোর্ট থানা। এলাকার মানুষের অভিযোগ রিকশায় চেপে এসে দুজন ব্যক্তি ওই এলাকার একজন ৬ বছরের ছেলেকে নাকি টার্গেট করেছিল। এরপরই ওই পরিবারের লোকজনদের চিৎকারে মানুষজন জড়ো হয়। দুজনকে হাতেনাতে ধরে স্থানীয় একটি ঘরে ঢুকিয়ে শুরু হয় মারধোর।কৈখালীতে ছেলেধরা সন্দেহে আটকে রাখার অভিযোগ দুজনকে। এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়।

Advertisement

বিধাননগর পৌর নিগমের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কৈখালী সরদারপাড়া(Sardarpara) এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর দুজনকে আটকে রাখার অভিযোগ এলাকার মানুষের বিরুদ্ধে ।চন্দন সর্দার নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে দুজন অচেনা ব্যক্তির আচমকা ঢুকে পড়ে ৬ বছরের একটি বাচ্চা ছেলেকে নাকি অপহরণ করার চেষ্টা করে।জানলা দিয়ে ডাকে। এরপরই সন্দেহ হলে দৌড়ে গিয়ে এলাকার মানুষ তাদেরকে ধরে ফেলে। তাই নিয়েই উত্তেজনা ছড়ায় ওই এলাকায়। এরপরেই এয়ারপোর্ট থানায়(Airport P.S.) খবর দেওয়া হলে এয়ারপোর্ট থানার পুলিশ দুজনকে আটক করে নিয়ে যায়। গতকালও এই একই রকম ছবি ধরা পড়েছিল ওই এলাকায়, এমনটাই অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। ইতিমধ্যেই পুলিশের পক্ষ থেকে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এদিকে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপ্রহারের ঘটনা রুখতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া নির্দেশ দিয়েছেন প্রশাসনকে।

Advertisement

রাজ্যের এডি জি (আইন-শৃঙ্খলা)(ADG Law And Order) মনোজ ভার্মা ভবানী ভবনে বৈঠক করে প্রত্যেক জেলার পুলিশ সুপার ও কমিশনারেটের সিপিদের এই ধরনের অপরাধ রূপে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু তারপরেও বারাসত থেকে শুরু হওয়া ছেলে ধরা সন্দেহে গণপ্রজাদের ঘটনা গোটা রাজ্য জুড়ে প্রতিদিন ঘটেই চলেছে। এয়ারপোর্ট সংলগ্ন কৈখালীতে সেই ছেলে ধরা সন্দেহে দুজনকে পুলিশের হাতে তুলে না দিয়ে নিজেদের হাতে আইন তুলে নিল ওই এলাকার সরদার পাড়ার বাসিন্দারা। ক্রমাগত জনগণের মধ্যে আইন হাতে তুলে নেওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পাওয়ায় চিন্তিত প্রশাসন। ইতিমধ্যে এই ধরনের অপরাধ রোদে জোরদার প্রচার চালাচ্ছে প্রশাসন। কিন্তু তারপরেও এই সন্দেহের বসে গুজবের জেরে গন প্রহারের ঘটনা কিছুতেই রোধ করা যাচ্ছে না।

Advertisement
Tags :
Advertisement