For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

সংসদে সেলফি মুডে মহুয়া-রচনা-সায়নীরা, ছবি পোস্ট জুন মালিয়ার

তবে এদিন তৃণমূলের মহিলা বাহিনীর মধ্যমণি ছিলেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার লোকসভায় প্রথমবার পা রেখেই ফটোসেশনে মেতে উঠলেন রচনা, জুন, সায়নীরা।
04:55 PM Jun 24, 2024 IST | Susmita
সংসদে সেলফি মুডে মহুয়া রচনা সায়নীরা  ছবি পোস্ট জুন মালিয়ার
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নিজস্ব প্রতিনিধি: সংসদে সেলফি তোলার মুডে মাতলেন তৃণমূলের তারকা সাংসদরা। যাঁর মধ্যে দেখা মিলল, হুগলীর নবাগতা সাংসদ রচনা বন্দোপাধ্যায়, জুন মালিয়া, সায়নী ঘোষদের। আর সংসদে তোলা সেই রঙিন মুহূর্তের ছবি পোস্ট করলেন মেদিনীপুরের সাংসদ জুন মালিয়া। প্রথমবার দিল্লি সাংসদ ভবনে পা দিয়েছেন তাঁরা, যা তাঁদের কাছে জীবনের অন্যতম গর্বের মূহুর্ত। চলতি লোকসভা নির্বাচনে বাংলার ৪২টি আসনের মধ্যে ২৯ টি ঘাসফুল শিবিরের দখলে। আর তাতে নারিশক্তির জয় হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর প্রায় ১১ জন প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। যাঁদের মধ্যে হুগলি থেকে রচনা বন্দোপাধ্যায়, মেদিনীপুর থেকে জুন মালিয়া, যাদবপুর থেকে সায়নী ঘোষ, বীরভূম থেকে শতাব্দী রায় জিতেছেন। আর তাঁরা সকলেই এককালে টলিউডের দাপুটে অভিনেত্রী ছিলেন। রচনা বাদে বাকি নেত্রীরা রাজনীতিতে পুরনো হলেও রচনা কিন্তু একেবারেই নবাগতা। আর রাজনীতির ময়দানে নেমেই ছক্কা হাঁকিয়েছেন অভিনেত্রী।

Advertisement

এখন তিনি হুগলির সাংসদ। যাই হোক, ২৪ জুন সাংসদ হিসেবে শপথ গ্রহণের পর্ব ছিল বাংলার সকল সাংসদদের। তাই শপথগ্রহণের আগেই দিল্লিতে পৌঁছে গিয়েছেন তাঁরা। সোমবার একদিকে যখন সংসদ চত্বর ইন্ডিয়া জোটের বিক্ষোভে উত্তাল, তখন ফুরফুরে মেজাজে সংসদে দেখা মিলল তৃণমূলের প্রমিলা বাহিনীর। প্রথমবার সংসদে পা রাখা, তাই এই মূহুর্তটি ক্যামেরাবন্দি না করে থাকতে পারলেন না তারকা সাংসদরা। তবে এদিন তৃণমূলের মহিলা বাহিনীর মধ্যমণি ছিলেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার লোকসভায় প্রথমবার পা রেখেই ফটোসেশনে মেতে উঠলেন রচনা, জুন, সায়নীরা। কখনও সেলফিতে আড্ডার মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি করলেন তাঁরা, আবার কখনও ক্যামেরাম্যান অবতারে ধরা দিলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী সংসদের সিঁড়িতে দাঁড়িয়েও জুন-রচনাদের সঙ্গে ছবি তুললেন তিনি। প্রথমদিন সংসদে পা রেখে একটি সংবাদমাধ্যমকে নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানালেন সায়নী।

Advertisement

তিনি বললেন, দারুণ! তাঁর নেত্রীর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উনি বাঘিনী। আর তিনিই মানুষের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দিয়েছেন তাঁদের। ভীষণ বড় পাওনা। কোনও রকম স্বৈরাচারীতা চলবে না। জুন মালিয়া বলেন, প্রথম দিন। তাই তাঁরা সবাই খুব এক্সাইটেড। আশা করি, আগামী ৫ বছর এমনই সুন্দর হবে। এদিন সকলেই শাড়িতে সেজে ছিলেন। জুন মালিয়ার পরনে ছিল আইভরি রঙের শাড়ি। সঙ্গে ম্যাচিং ব্লাউজ। ছিমছাম সাজেই সেলফিবন্দি হয়েছেন তিনি। অন্যদিকে যাদবপুরের সাংসদ সায়নী ঘোষ নিলাম্বরী সাজে সংসদে ধরা দিয়েছেন। অন্যদিকে দিদি নম্বর ওয়ান রচনাকে নিজস্ব বুটিকের সবুজ রঙের শাড়িতেই সংসদে পা রেখেছেন।তবে তাঁদের মধ্যে সবথেকে নজর কেড়ে নিলেন কমলা-গোলাপি কম্বিনেশনের পিওর সিল্ক শাড়ি পরা মহুয়া মৈত্রও।

Advertisement
Tags :
Advertisement