For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ইংরেজবাজারে হকার্স কর্ণার পূর্ত দপ্তরের জায়গায় বেআইনি ভাবে বানানোর অভিযোগ পুরসভার বিরুদ্ধে

06:12 PM Jul 09, 2024 IST | Subrata Roy
ইংরেজবাজারে হকার্স কর্ণার পূর্ত দপ্তরের জায়গায় বেআইনি ভাবে বানানোর অভিযোগ পুরসভার বিরুদ্ধে
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদা: রথযাত্রার দিন ঢাকঢোল পিটিয়ে ইংরেজবাজার পৌরসভার দুই নম্বর কলোনি এলাকায় পুরনো জাতীয় সড়কের পাশে উদ্বোধন করা হয় হকার্স কর্নার। আর এই হকার্স কর্নার ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিরোধীদের অভিযোগ এটি অবৈধ নির্মাণ। ইতিমধ্যেই পূর্ত দপ্তর থেকে পুরসভাকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে পূর্ত দপ্তরের জায়গার উপর অবৈধভাবে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। যদিও অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন পুর চেয়ারম্যান(Chairman)কৃষ্ণেন্দু নারায়ন চৌধুরী।

Advertisement

মালদা শহরের প্রবেশ করতেই পুরনো জাতীয় সড়কের পাশে দু 'নম্বর গভমেন্ট কলোনি এলাকায় ইংরেজ বাজার পুরসভা একটি হকার্স কর্নার তৈরি করেছে। ৫৭ জন হকারকে এখানে ব্যবসা করার জন্য প্ল্যাটফর্ম দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ হকার কর্নারটি পূর্ত দপ্তরের জায়গায় অবৈধভাবে নির্মাণ করেছে পুরসভা।ইংরেজ বাজার পৌরসভার বিরোধী দলনেতা বিজেপি কাউন্সিলর অম্লান ভাদুডির অভিযোগ, এই রাজ্য চালায় তৃণমূল ।এই পুর সভাও চালায় তৃণমূল ।যেখানে মুখ্যমন্ত্রী(CM) বলছেন সরকারি জায়গায় কোন অবৈধ নির্মাণ করা যাবে না। সেখানে কোন অনুমতি ছাড়াই পুরসভা এই নির্মাণ করেছে।

Advertisement

পাল্টা পুর চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন, গরিব মানুষকে এখানে ব্যবসা করার জন্য ব্যবস্থা করেছে পুরসভা। বিজেপি মানুষের কথা ভাবে না। নির্দিষ্ট ভাবে অনুমতি নেওয়া হয়েছে বলে তার দাবি। অন্যদিকে,জাল দলিল দিয়ে রেকর্ড করতে এসে হাতে নাতে ধরা পড়লো এক ব্যক্তি।ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নং বিএলআরও(BLRO) অফিসে।ধৃত ব্যক্তির নাম আমজাদ খান। বাড়ি সুলতান নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।হরিশ্চন্দ্রপুর দু'নম্বর ব্লকের বি এল আর ও সুরজিৎ দাস জানান, আমজাদ খানের ওই ছেলেটি পাঁচটা দলিল রেকর্ড করার জন্য দিয়েছিল,সেটা আমরা এ ডি এস আর অফিসে ক্রস চেকিং করে জানতে পারি যে প্রত্যেকটা দলিল জাল। তারপর সেই ছেলেটির বিরূদ্ধে এফ আই আর দায়ের করে পুলিশ প্রশাসন হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

Advertisement
Tags :
Advertisement