For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

কলকাতা-সহ রাজ্যে সরকারি জমি দখল হয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ মমতা

07:47 PM Jun 20, 2024 IST | Sundeep
কলকাতা সহ রাজ্যে সরকারি জমি দখল হয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ মমতা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলকাতা-বিধাননগর সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়  ‘বেহাত’ হয়ে যাচ্ছে সরকারি জমি। বার বার সতর্ক করা সত্বেও কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না। আর তাতেই ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার নবান্নে প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকে সরকারি জমি বেহাত নিয়ে কলকাতা পুলিশের কমিশনার বিনীত গোয়েল-সহ ভূমি সংস্কার দফতরের সচিবকে তিরস্কারও করেছেন তিনি। রাজ্যের কোন জেলায় কত সরকারি জমি রয়েছে তা নিয়ে সোমবারের মধ্যে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য জেলাশাসক-সহ সংশ্লিষ্ট দফতরের আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

Advertisement

এদিন নবান্নে রাজ্যের সমস্ত দফতরের সচিব, অতিরিক্ত সচিব, জেলাশাসক এবং পুলিশ কর্তাদের বৈঠকে ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ছিলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, দমকল মন্ত্রী সুজিত বসুও। সূত্রের খবর, বৈঠকে কীভাবে সরকারি জমি বেহাত হয়ে যাচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েলকে জমি বেহাত রুখতে ব্যর্থ হওয়ায় তিরস্কার করেন তিনি। পুলিশ আধিকারিকদের পাশাপাশি ভূমি ও ভূমিসংস্কার দফতরের কাজকর্ম নিয়েও উষ্মা প্রকাশ করেন। কয়েক মাস আগেই সরকারি জমি বেহাত নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জমি ‘বেহাত’ রুখতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই নির্দেশ বাস্তবায়িত না হওয়ায় যথেষ্টই ক্ষুব্ধ হন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান।

Advertisement

কেন নির্দেশ দেওয়া সত্বেও সরকারি জমি ‘বেহাত’ হওয়া রোখা যাচ্ছে না, জেলাশাসকদের কাছে সে বিষয়েও কৈফিয়‍ৎ তলব করেন মুখ্যমন্ত্রী। এর পরেই আগামী সোমবারের মধ্যে জেলায়-জেলায় সরকারের মোট কত জমি রয়েছে, কত জমি বেহাত হয়েছে তা নিয়ে রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দেন তিনি। সরকারি জমি বেহাত হওয়া নিয়ে যেমন ভূমি সংস্কার দফতরের ভূমিকার সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী, তেমনই পুর পরিষেবা নিয়েও ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। পূর্ত দফতরের কাজকর্ম নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

Advertisement
Tags :
Advertisement