For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

৯০০ কোটির বরাদ্দ একাদশের ট্যাব কিনতে, বিজ্ঞপ্তি জারি শিক্ষা দফতরের

‘তরুণের স্বপ্ন’ প্রকল্পের মাধ্যমে ট্যাব দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে দিল রাজ্যের শিক্ষা দফতর। এর জন্য বরাদ্দ হয়েছে ৯০০ কোটি টাকা।  
12:19 PM Mar 13, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
৯০০ কোটির বরাদ্দ একাদশের ট্যাব কিনতে  বিজ্ঞপ্তি জারি শিক্ষা দফতরের
Courtesy - Facebook and Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কোভিডকালে বাড়িতে বসে যাতে অনলাইনে বাংলার পড়ুয়ারা যাতে উচ্চশিক্ষার সুযোগ নিতে পারেন তার জন্য ‘তরুণের স্বপ্ন’(Taruner Swapna) প্রকল্পের মাধ্যমে তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার টাকা করে পাঠানোর সূচনা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। কোভিডকাল পেরিয়ে গেলেও রাজ্য সরকার সেই প্রকল্প কিন্তু বন্ধ করে দেয়নি। মুখ্যমন্ত্রী বরঞ্চ সিদ্ধান্ত নেন, এবার থেকে প্রতি বছর রাজ্যের সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ও মাদ্রাসার দ্বাদশ শ্রেনীর পড়ুয়াদের প্রতিবছর এই টাকা দেওয়া হবে ট্যাবলেট কম্পিউটার বা স্মার্ট ফোন(Smart Phone) কেনার জন্য। সেই মতন এই বছরও জানুয়ারি মাসে রাজ্যের সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ও মাদ্রাসার ৯.৭৭ লক্ষ পড়ুয়াদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার টাকা করে পাঠানো হয়। পরে ফেব্রুয়ারি মাসে রাজ্য বাজেটে ঘোষণা করা হয়, আর দ্বাদশ শ্রেনীতে নয়, একাদশ শ্রেনী থেকেই দেওয়া হবে এই ট্যাব। সেই মতন এবার ‘তরুণের স্বপ্ন’ প্রকল্পের মাধ্যমে ট্যাব দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে দিল রাজ্যের শিক্ষা দফতর(West Bengal State Education Department)।

Advertisement

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার ‘তরুণের স্বপ্ন’ প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের সরকারি ও সরকার পোষিত উচ্চমাধ্যমিক স্কুল ও হাইমাদ্রাসার একাদশ শ্রেনীর পড়ুয়াদের ট্যাব বা স্মার্ট ফোন দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। সেই বিজ্ঞপ্তিতে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের হাতেও ট্যাব তুলে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। প্রত্যেকেই এর জন্য ১০ হাজার টাকা করে পাবে। তবে আগামী বছর থেকে শুধুমাত্র একাদশের পড়ুয়াদেরই এই টাকা দেওয়া হবে। ২০২১ সাল থেকে এই প্রকল্পের অধীনে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ট্যাব বা স্মার্ট ফোন কেনার জন্য ১০ হাজার টাকা করে দিয়ে আসছিল রাজ্য সরকার। তবে দ্বাদশ শ্রেণিতে টাকা মেলায় স্কুলে সে ভাবে কাজে আসছিল না ট্যাব বা স্মার্টফোন বলে অনেকের অভিমত। কারণ দ্বাদশের পড়ুয়ারা ততদিনে পাশ করে বেরিয়ে যাচ্ছিলেন। সে কারণেই মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি ঘোষণা করেন, এবার থেকে একাদশেই এই টাকা দেওয়া শুরু হবে। তাই শেষ ব্যাচ হিসেবে এ বছর দ্বাদশের পড়ুয়ারা টাকা পাচ্ছেন। এর জন্য ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষের রাজ্য বাজেটে ৯০০ কোটি টাকা বরাদ্দও করা হয়েছে।

Advertisement

উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মুখ্যমন্ত্রী দ্বাদশ শ্রেনীর পড়ুয়াদের হাতে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই ‘তরুণের স্বপ্ন’ প্রকল্পের হাত ধরে ট্যাব তুলে দিয়েছিলেন। সেই সময়ে বাংলার প্রায় ১০ লক্ষ পড়ুয়ার হাতে প্রায় ১০০০ কোটি টাকা তুলে দেওয়ার কাজের শুভ সূচনা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তার আগে বিগত ৩ বছরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ২৭ লক্ষ পড়ুয়ার হাতে ১০ হাজার টাকা করে তুলে দিয়েছিল এই প্রকল্পের মাধ্যমে ট্যাবলেট কম্পিউটার বা স্মার্ট ফোন কেনার জন্য। জানুয়ারি মাসে ৯.৭৭ লক্ষ পড়ুয়াকে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারের খরচ হয়েছিল ৯৭৭ কোটি টাকা। দেশের আর কোনও রাজ্য সরকার বা কেন্দ্রের সরকারও এত টাকা খরচ করে না পড়ুয়াদের হাতে ট্যাবলেট কম্পিউটার বা স্মার্ট ফোন কিনে দেওয়ার জন্য। এটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারই প্রতি বছর করে দেখাতে পারে। এবারেও ৯০০ কোটি টাকা বরাদ্দ(Allotment of 900 Crore Rupees) থাকছে এর জন্য।

Advertisement
Tags :
Advertisement