For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

কথা দিয়ে কথা রাখছেন মমতা, চাকরি পাচ্ছেন ঢেউচা-পাঁচামির ইচ্ছুক জমিদাতারা

সিউড়ির সভামঞ্চ থেকেই এদিন মুখ্যমন্ত্রী ঢেউচা-পাঁচামি এলাকার ইচ্ছুক জমিদাতাদের মধ্যে ১ হাজার ১৩৫ জনকে সরকারি সাহায্য তুলে দিয়েছেন।
05:35 PM Feb 18, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
কথা দিয়ে কথা রাখছেন মমতা  চাকরি পাচ্ছেন ঢেউচা পাঁচামির ইচ্ছুক জমিদাতারা
Courtesy - Facebook
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কথা দিয়ে কথা রাখার আরেক নাম মমতা(Mamata Banerjee)। এটা বাংলার মানুষ আগেই জেনে গিয়েছেন। তাই বছর বছর একের পর এক নির্বাচনে বিরোধীদের ভোকাট্টা করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকেই জিতিয়ে চলেছে বাংলার জনতা। বিরোধীদের শত মিথ্যার প্রোপাগান্ডাকে পাশে সরিয়ে রেখে তাঁরা ভরসা রেখেছেন বাংলার অগ্নিকন্যার ওপর, পরিবর্তনের কান্ডারীর ওপর। বাংলার সেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন আবারও প্রমাণ করে দিলেন তিনি কথা দিলে সেই কথা তিনি রাখতে জানেন। রাজ্যের বিধানসভায় দাঁড়িয়ে তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন একদিন, বীরভূম(Birbhum) জেলার সিউড়ি(Suri) সদর মহকুমার মহম্মদবাজার(Muhammad Bazaar) ব্লকের ঢেউচা-পাঁচামি কয়লাখনি শিল্প(Deucha Pnachamai Coal Mines Industry) গড়তে জমিদাতাদের জমির দাম ও ক্ষতিপূরণের পাশাপাশি দেওয়া হবে সরকারি চাকরিও। এদিন অর্থাৎ রবিবার সেই জেলার মাটিতে দাঁড়িয়ে সিউড়ির সভামঞ্চ থেকেই তিনি ঢেউচা-পাঁচামি এলাকার ইচ্ছুক ১ হাজার ১৩৫ জনকে সরকারি সাহায্য তুলে দিলেন।

Advertisement

এদিন সিউড়ির সভামঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী ঢেউচা-পাঁচামি এলাকার ইচ্ছুক জমিদাতাদের হাতে জমির জন্য ক্ষতিপূরণ ও সরকারি চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দেন। যে ১ হাজার ১৩৫ জনের হাতে এই সুনিধা প্রদান করেছেন মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের মধ্যে ৫৬৩ জন পেয়েছেন জমি প্রদানের জন্য জমির দাম ছাড়াও অতিরিক্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণের চেক। জমি দাতাদের মধ্যে থেকে ৩৪২ জন পেয়েছেন রাজ্য পুলিশের জুনিয়র কনস্টেবল পদে চাকরির নিয়োগপত্র। ২৩০ জন পেয়েছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারী হিসাবে Group-D পদে চাকরির নিয়োগপত্র। এই নিয়ে ঢেউচা-পাঁচামি এলাকায় কয়লা খনি শিল্পের জন্য ইচ্ছুক জমি দাতাদের মধ্যে থেকে ৭হাজার ৬৮৩ জনকে নিয়োগপত্র দেওয়া হল রাজ্য সরকারের তরফে। সেই সূত্রেই মুখ্যমন্ত্রী এদিন বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে জানিয়েছেন, ‘খনি প্রকল্পের কাজ সম্পূর্ণ হলে এক লক্ষ ছেলেমেয়ের চাকরি হবে।’ এছাড়াও এদিন মুখ্যমন্ত্রী ২৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ঢেউচা-পাঁচামি এলাকার জন্য ১৩২.৩৩ কেভি সাবস্টেশন নির্মান কাজের শিলান্যাস সাধনও করেন। এদিনের সভা থেকে বীরভূম জেলার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মোট ১ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা মূল্যের হাজারেরও বেশি প্রকল্পের উদ্বোধন অথবা শিলান্যাস সাধন করেন।

Advertisement

সিউড়ির চাঁদমারি ময়দানের প্রশাসনিক সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী জানান এদিন তিনি ৭২৩.২৩ কোটি টাকা মূল্যের প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন এবং ৬১০ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা মূল্যের একগুচ্ছ প্রকল্পের শিলান্যাস সাধন করেছেন। প্রায় লক্ষ মানুষকে পরিষেবা প্রদান করার পাশাপাশি এদিন প্রায় সাত লক্ষ মানুষের কাছে সরকারি পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মহিলাদের কর্মসংস্থান নিয়ে বড় দিশা দেখিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘আমাদের সেলফ হেলফ গ্রুপের মহিলারা অনেক কাজ করেন। আমাদের তাঁতিরাও অনেক কাজ করেন। আমরা সরকার থেকে যত প্রয়োজনীয় জিনিস আমাদের তাঁতি ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার থেকে নেব। প্রতিটি জেলায় একটি করে বিগ বাজার তৈরি করব। যেখানে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মীদের জিনিসপত্র বিক্রি হবে। তাদের স্থায়ী রোজগারের জন্য এই বন্দোবস্ত। সেই সঙ্গেই তাঁরা এবার থেকে প্রতি বছর এককালীন ২৫ হাজার টাকা করে পাবেন। তাঁদের স্থায়ী রোজগারের জন্য এই বন্দোবস্ত। জেলায় জেলায় রয়েছে সেলফ হেলফ গ্রুপ। বহু মহিলা এই গোষ্ঠীগুলির সঙ্গে যুক্ত থাকেন। গ্রামের মহিলাদের নিজের পায়ে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে একটা বড় সহায়। পুরুষেরাও এই ধরনের গ্রুপ খুলছেন। তাঁরাও এই সুবিধা পাবেন।’

Advertisement
Tags :
Advertisement