For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

'স্টুডিওতে এসে সবকিছু ভাঙচুর করে ভক্তরা', ভয়ঙ্কর স্মৃতিচারণ অমরের

সেই সময় ২৫ জন মহিলা বালাজি টেলিফিল্মসের অফিসের বাইরে জড়ো হয়েছিল। তাঁরা পাথর ছুড়ছিলেন অফিসে, জানালার বেশ কিছু কাচ ভেঙে যায়।
02:44 PM Nov 01, 2023 IST | Sushmitaa
 স্টুডিওতে এসে সবকিছু ভাঙচুর করে ভক্তরা   ভয়ঙ্কর স্মৃতিচারণ অমরের
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: সিনেমার পর্দায় বা সিরিয়ালের পর্দায় অনেক ভয়ঙ্কর দৃশ্য আমাদের নজরে পড়ে। কিন্তু বাস্তবে ওই ধরণের দৃশ্য তৈরি করতে রীতিমতো মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয় প্রযোজক সংস্থা টিম সদস্যদের। যাই হোক, স্টারপ্লাসের খুব জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল 'কিঁউ কি সাস ভি কভি বহু থি'। সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি দৃশ্যে নিজের স্মৃতিকথা তুলে ধরলেন হিন্দি টেলিভিশনের অতি পরিচিত মুখ অমর উপাধ্যায়। তবে দর্শক তাঁকে চেনেন মিহির ভিরানি হিসাবেই। যিনি ছিলেন ‘কিঁউ কি সাস ভি কভি বহু থি’-র তুলসীর আদর্শ স্বামী। কিন্তু মাঝপথেই এই সিরিয়াল ছেড়ে দিয়েছিলেন অমর, তখন মুখ বদল হয় চরিত্রের। কিন্তু কেন ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি সিরিয়াল, তা জানেন কী?

Advertisement

যদিও মাঝ পথেই সিরিয়ালের সেট থেকে তাঁর সরে যাওয়া কোনও দর্শক সহজে মেনে নিতে পারেনি। আসলে মিহিরের অ্যাক্সিডেন্টের ট্র্যাক পর্দায় আসতেই শুরু হয় হইচই। কিন্তু ঠিক কী ঘটেছিল, তা হয়তো সবারই অজানা। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অতীতের সেই স্মৃতি তুলে ধরলেন অভিনেতা। নতুন শতাব্দীর শুরুর দিকেই হিন্দি টেলিভিশনে আলোড়ল ফেলেছিল একতা কাপুরের ‘কিঁউ কি সাস ভি কভি বহু থি’। মিহির-তুলসী জুটিকে চোখে হারাত বাঙালি দর্শকরাও। তবে তখন বাংলার সিরিয়ালগুলি এতটাও জেগে উঠতে পারেনি। স্মৃতি ইরানি আর অমর উপাধ্যায়ের সেই জুটি রাতারাতি পেয়ে গিয়েছিল সুপারস্টরের তকমা। তখনই একগুচ্ছ ছবির অফারের লোভে সিরিয়াল থেকে সরে দাঁড়ান অমর। মৃত্যু ঘটে তাঁর চরিত্রের। দর্শকরা তা মেনে পারেননি, তাই তাঁরা স্টুডিওতে চলে এসেছিলেন। সম্প্রতি সিদ্ধান্ত কানানকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেতা বলেন, ‘সেই সময় ২৫ জন মহিলা বালাজি টেলিফিল্মসের অফিসের বাইরে জড়ো হয়েছিল। তাঁরা পাথর ছুড়ছিলেন অফিসে, জানালার বেশ কিছু কাচ ভেঙে যায়। সকলের একটাই কথা ছিল, কেন ওকে মেরে ফেলা হল? কে অধিকার দিয়েছে মিহিরকে মেরে ফেলার?’ এই ঘটনা চমকে দিয়েছিল সকলকে।

Advertisement

এমনকী একবার পরিবারের সঙ্গে তাজ মহল ঘুরতে গিয়েছিলেন অমর। তখন মাস ছয়েক হল কিঁউ কি সাস ভি কভি বহু থি-র সম্প্রচার শুরু হয়েছে। কোনও এক শুক্রবারের সন্ধ্যায় তাজ দর্শনে হাজার হাজার মানুষের ভিড়, হঠাৎ করেই তাঁকে সেখানে দেখে ভিড় জমে যায়। অমরের কথায়, ‘ভিড়ের ঠেলায় আমি পরিবারের থেকে আলাদা হয়ে যাই। এরপর আমাকে চ্যাংদোলা করে এক কোণায় নিয়ে যায়, সিকিউরিটি এসে আমাকে উদ্ধার করে। শেষে দেখলাম, আমার জামাকাপড় ছিঁড়ে গিয়েছে। তাজমহল আর দেখা হল না’। আগামিতে কালার্সের 'দূরি' সিরিয়ালে দেখা যাবে তাঁকে। 

 

Advertisement
Tags :
Advertisement