For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ফেসবুক লাইভ চলাকালীন গুলিতে ঝাঁঝরা উদ্ধব সেনার নেতা

09:47 PM Feb 08, 2024 IST | Sundeep
ফেসবুক লাইভ চলাকালীন গুলিতে ঝাঁঝরা উদ্ধব সেনার নেতা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি, মুম্বই: ছদ্মবেশী শত্রু কত ভয়ঙ্কর হতে পারে প্রাণ দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন উদ্ধব গোষ্ঠীর নেতৃত্বাধীন শিবসেনা সেনা অভিষেক ঘোসালকর। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক পরিচিতকে পাশে নিয়েই ফেসবুক লাইভ করছিলেন তিনি। আর ওই ফেসবুক লাইভ চলাকালীন পাশে থাকা ব্যক্তিই আচমকা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালাল। গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল অভিষেককে। যদিও চিকি‍ৎসকরা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েও বাঁচাতে পারেননি তরুণ-তুর্কি নেতাকে। অভিষেক যেমন বাঁচেননি, তেমনই হামলাকারী নিজেই শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। ওই ভয়ঙ্কর ঘটনা ফেসবুকে দেখে শিহরে উঠেছেন অনেকেই। 

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, এদিন সন্ধ্যায় উদ্ধব সেনা নেতা বিনোদ ঘোসলকরের ছেলে অভিষেক ঘোসলকর দাহিসারে নিজের ফ্ল্যাটে বসেই ফেসবুক লাইভ করছিলেন। প্রাক্তন পুরপিতা হিসাবে এলাকায় যথেষ্টই জনপ্রিয় অভিষেক। ফেসবুক লাইভের সময়ে তাঁর পাশেই ছিলেন মৌরিস ভাউ নামে এক ব্যক্তি। হেসেই কথা বলছিলেন দুজনে। আচমকাই ফেসবুক লাইভ থেকে চলে যান মৌরিস। আর তার পরেই অভিষেককে লক্ষ্য করে গুলি চালান। প্রথম গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ার পরেই লাফিয়ে সরে যান অভিষেক। এর পরে আরও দুই রাউন্ড গুলি ছোড়া হয় তাঁকে লক্ষ্য করে। গুলির শব্দ শুনেই অভিষেকের সঙ্গীরা অন্য ঘর থেকে ছুটে আসেন। ধড়া পড়ে যাওয়ার ভয়ে এর পরে নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী হন হামলাকারী মৌরিস ভাউ।

Advertisement

স্থানীয়রাই গুলিবিদ্ধ অভিষেককে উদ্ধার করে করুনা হাসপাতালে নিয়ে যান। ফেসবুক লাইভে উদ্ধব সেনার নেতার উপরে হামলার খবর পেয়েই তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ। হাসপাতালের সামনে জড়ো হন উদ্বিগ্ন শিবসেনার (উদ্ধব গোষ্ঠী) নেতা-কর্মীরা। কিন্তু অভিষেককে বাঁচাতে পারেননি চিকি‍ৎসকরা। অস্ত্রোপচার চলাকালীন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন তিনি। পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, সম্ভবত ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরেই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

Advertisement
Tags :
Advertisement