For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

অনলাইন প্রতারণায় ২০১ কোটি টাকা খুঁইয়েছেন কেরলের ২০ হাজার বাসিন্দা

12:27 PM Jan 16, 2024 IST | Srijita Mallick
অনলাইন প্রতারণায় ২০১ কোটি টাকা খুঁইয়েছেন কেরলের ২০ হাজার বাসিন্দা
courtesy: google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বর্তমানে অনলাইনে বাড়ছে প্রতারণা। আর তারফলে হাজার হাজার টাকা  খুঁইয়েছেন বহু মানুষ। সম্প্রতি প্রকাশিত হওয়া এক তথ্য অনুসারে, অনলাইনের প্রতারণায় ২০১ কোটি টাকা খুঁইয়েছেন কেরলের ২৩,৭৫৩ জন বাসিন্দা। কেরলের পুলিশ জানিয়েছে, সাইবার জালিয়াতির ২০ শতাংশ অর্থ তারা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন।

Advertisement

জালিয়াতি রুখতে  ব্যবহৃত ৫,১০৭ টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, ৩,২৮৯ টি মোবাইল নম্বর, ২৩৯ টি সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট এবং ৯৪৫ টি ওয়েবসাইটকে বন্ধ করা হয়েছে বলে জানায় কেরালার পুলিশ। এই জালিয়াতি নিয়ে কেরালার পুলিশ একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, টাকা হারানোর দু'ঘণ্টার মধ্যে অনলাইন আর্থিক জালিয়াতির খবর ১৯৩০ নম্বরে জানাতে হবে। এতে জালিয়াতির শিকার ব্যক্তির হারানো অর্থ পুনরুদ্ধারের সম্ভাবনা বাড়বে। কিন্তু প্রায়শই টাকা জমা দেওয়ার ১০ দিন পরে পুলিশ অভিযোগ পায়। এতে প্রতারণার অর্থ উদ্ধার করতে বেশ অসুবিধার সম্মুখিন হতে  হয় ।

Advertisement

প্রতারকদের কার্যপ্রণালী সম্পর্কে বিশদ বিবরণ দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, বিপুল মুনাফার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিনিয়োগের আমন্ত্রণ জানানোর মত কেলেঙ্কারি জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে শুরু হয়। স্ক্যামাররা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যারা তাদের সাথে যোগাযোগ করে তাদের টেলিগ্রাম গ্রুপে যোগ দেয়। এরপর তারা একটি ভুয়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অর্থ দাবি করে।

প্রাথমিকভাবে, যারা অল্প পরিমাণ অর্থ জমা দেয় তাদের অতিরিক্ত মুনাফা দেওয়া হয় যাতে তারা প্রতারকদের উপর আরও বিশ্বাস রাখে। শুধু তাই নয় বৃহত্তর মুনাফা বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক হয়। এরফলে রাজ্যে প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগ জালিয়াতি ঘটছে।উল্লেখ্য,  সাইবার কেলেঙ্কারির বিরুদ্ধে জনসাধারণকে সতর্ক থাকতে এবং অনলাইন জালিয়াতির ঘটনা ঘটলে দু'ঘণ্টার মধ্যে ১৯৩০ নম্বরে  রিপোর্ট জমা করার নির্দেশ দিয়েছে কেরালার পুলিশ।

Advertisement
Tags :
Advertisement