For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

দিল্লির বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস জয় পঞ্জাবের

07:21 PM Mar 23, 2024 IST | Mainak Das
দিল্লির বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস জয় পঞ্জাবের
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস জয় ছিনিয়ে নিল পঞ্জাব কিংস। শেষ ওভারে ছয় মেরে জয় ছিনিয়ে নিলেন লিভিংস্টোন। পঞ্জাবকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেন সাম কারেন। চার উইকেটে ম্যাচ জিতে গেল পঞ্জাব কিংস। 

Advertisement

এদিন ১৭৫ রান তাড়া করতে নেমে প্রথমে শুরুটা ভালোই করেছিলেন অধিনায়ক শিখর ধাওয়ান। তবে জনি বেয়ারস্টোকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর এই জুটি অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেনি। ৪২ রানের মধ্যেই পঞ্জাবের দুটি উইকেট পড়ে যায়। ম্যাচের হাল ধরেন সাম কারেন। প্রভসিমরন সিং ও জীতেশ শর্মার সঙ্গে ছোট ছোট পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন কারেন। ১০০ রানের মধ্যে পঞ্জাবের চার উইকেট পড়ে যায়। তবে তখনও হাল ছাড়েননি ইংল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যান। এরপর লিভিংস্টোনকে সঙ্গে নিয়ে বড় রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন কারেন। এবারের আইপিএলের মরশুমে কারেনই প্রথম ব্যক্তি যিনি অর্ধশতরান করলেন। শেষপর্যন্ত পঞ্জাবকে জয়ের দোরগোড়ায় নিয়ে এসে খলিল আহমেদের বলে আউট হয়ে যান কারেন। কারেন যখন আউট হন তখন পঞ্জাবের জয়ের জন্য প্রয়োজন ৯ বলে ৮ রান। এরপর মাঠে নেমে শশাঙ্ক কোন রান না করেই আউট হয়ে যান। একটা সময়ে পঞ্জাবের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৬ বলে ৪ রান। শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে ছয় মেরে ম্যাচ জিতিয়ে নিলেন লিভিংস্টোন। 

Advertisement

এদিকে এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শ শুরুটা ভালোই করেছিলেন। কিন্তু সেটা ধরে রাখা গেল না। দলগত ৩৯ রানের মাথাতেই ওয়ার্নার, মার্শের জুটি ভেঙে যায়। এরপর ডেভিড ওয়ার্নার অবশ্য সাই হোপকে সঙ্গে নিয়ে দলকে আরও কিছুটা এগিয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত দলগত ৭৪ রানের মাথায় ওয়ার্নারকেও চলে যেতে হয়। এরপর ক্রিজে নামেন অধিনায়ক ঋষভ পন্থ। দীর্ঘ ১৫ মাস পর ক্রিজে নেমে ঋষভ কী করেন, তা নিয়ে সকলেরই আগ্রহ ছিল। কিন্তু সকলকেই নিরাশ করলেন পন্থ। ব্যক্তিগত ১৮ রানের মাথাতেই আউট হয়ে য়ান পন্থ।

পন্থ আউট হয়ে যাওয়ার পর ধারাবাহিক উইকেট পতন হতে থাকে দিল্লি শিবিরে। একসময়ে ১২৮ রানের মধ্যে ছয় উইকেটের পতন হয়। এরপর মাঠে নামেন অভিষেক পোরেল ও অক্ষয় প্যাটেল। অক্ষয় প্যাটেল ১৩ বলে ২১ রান করে আউট হয়ে গেলেও দল কার্যত একা হাতেই এগিয়ে নিয়ে যান বাংলার উইকেট কিপার অভিষেক পোরেল। মাত্র ১০ বলে ৩২ রান করে অপরাজিত থাকেন এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। ৩২ রানের মধ্যে রয়েছে ৪টি চার ও দুটি ৬। শেষ পর্যন্ত দিল্লি ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান করে।

Advertisement
Tags :
Advertisement