For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ধর্মীয় বিভাজনের রাজনীতি রুখে দিন, রেড রোডের মঞ্চ থেকে আর্জি অভিষেকের

রেড রোডে ঈদের নমাজ থেকে ফের একবার ধর্মীয় বিভাজনের রাজনীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আর্জি জানালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।
12:06 PM Apr 11, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
ধর্মীয় বিভাজনের রাজনীতি রুখে দিন  রেড রোডের মঞ্চ থেকে আর্জি অভিষেকের
Courtesy - Facebook
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: সংক্ষিপ্ত অথচ সুনিপুণ বক্তব্য। কলকাতার রেড রোডে বৃহস্পতিবার ঈদের নমাজের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের(TMC) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়(Abhishek Banerjee)। অনুষ্ঠানে মমতাই ছিলেন মূল বক্তা। তাঁর বক্তব্যের পরে অভিষেক হাতে মাইক তুলে নেন। তবে তিনি দীর্ঘায়িত করেননি নিজের বক্তব্য। বরঞ্চ সুনিপুণ ভাবে সংক্ষিপ্ত আকারেই নিজের বক্তব্য রাখেন বিজেপিকে(BJP) নিশানা বানিয়েই। রেড রোডের মঞ্চ থেকে অভিষেক সাফ প্রশ্ন তোলেন, ‘হিন্দুস্থান কি কারোর বাবার? যে ভাবে ভাইয়ের সঙ্গে ভাইয়ের লড়াই করাবে, তাদের উদ্দেশে একটাই কথা বলব - কিরায়াদার হ্যায়, জাতি মকান থোরি হ্যয়। যে সরকার আপনারা মনোনীত করেন, তার মালিক আপনারাই। সরকার ভাড়াটে হয়, সরকার স্থায়ী নয়, স্থায়ী হল জনতা।’

Advertisement

এদিন অভিষেক বলেন, ‘আপনারা এক মাস ধরে রোজা রেখেছেন। আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছেন। আল্লাহ আপনার সমস্ত কামনা পূর্ণ করুক। সকলের পরিবারে শান্তি, সুস্বাস্থ্য কামনা করি। সকলে ভালোবাসায় থাকুন। যে ভাবে আপনারা সৌভ্রাতৃত্ব বজায় রেখেছেন, তা যেন বজায় থাকে। যে চাঁদ  দেখে ঈদ হয়, সেই চাঁদ দেখে করবা চৌথও হয়। যে গঙ্গার জল হিন্দু ভাই পান করেন, সেই গঙ্গারই জল একজন মুসলমান ভাইও পান করেন। জল-চাঁদের কোনও ধর্ম নেই। যে হাওয়ায় শ্বাস নিই আমরা, তারও কোনও ধর্ম নেই। সৌভ্রাতৃত্বটাই বজায় রাখতে হবে। আব কুছ ভি হো, মসম বদলানা চাহিয়ে। দিদি যা বলেছেন, তার পর বেশি কথা বলা যায় না। তবু, তিনি যখন বলতে বলেছেন, আমি বলছি। সবাই খুশির ঈদে আনন্দ করুন। মনে রাখবেন, যে জল আমরা খাই, তা ভাগ হয় না। যে বাতাসে আমরা নিঃশ্বাস নিই, তা-ও ভাগ হয় না। আমাদের সকলের গায়ে যে রক্ত বইছে, তার রং লাল। কেউ কেউ এই সব কিছুর মধ্যে বিভাজন করতে চাইবে। কিন্তু আপনারা সবাই মিলে তা রুখে দেবেন। বাংলার ঐতিহ্য এই একতা।’

Advertisement

Advertisement
Tags :
Advertisement