For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

কানাডায় ভারতীয় ২৮ বছর বয়সী যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেফতার ৪

কানাডায় তিনি সেলস এক্সিকিউটিভ হিসেবে কাজ করতেন। জানা গিয়েছে, যুবরাজ পঞ্জাব লুধিয়ানার বাসিন্দা। তাঁর বাবা রাজেশ গয়াল জ্বালানি কাঠের ব্যবসা করেন, এবং তাঁর মা শকুন গয়াল একজন গৃহবধূ।
11:36 AM Jun 10, 2024 IST | Susmita
কানাডায় ভারতীয় ২৮ বছর বয়সী যুবককে গুলি করে হত্যা  গ্রেফতার ৪
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: দিনের পর দিন বিদেশে গিয়ে ভারতীয়দের প্রাণ হারানোর সংখ্যা বেড়েই যাচ্ছে। শুক্রবার কানাডার সারেতে পঞ্জাবের লুধিয়ানার এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তির নাম যুবরাজ গয়াল। তিনি ২০১৯ সালে স্টুডেন্ট ভিসায় কানাডায় গিয়েছিলেন। এমনকী ৫ বছর কানাডায় থাকার পর সদ্য তিনি কানাডিয়ান স্থায়ী বাসিন্দা (পিআর) হিসেবে মর্যাদা পেয়েছিলেন। কিন্তু নিমেষেই সব শেষ হয়ে গেল। শুক্রবার গুলিতে নিহত হয়েছেন ২৮ বছর বয়সী যুবরাজ। কানাডায় তিনি সেলস এক্সিকিউটিভ হিসেবে কাজ করতেন। জানা গিয়েছে, যুবরাজ পঞ্জাব লুধিয়ানার বাসিন্দা। তাঁর বাবা রাজেশ গয়াল জ্বালানি কাঠের ব্যবসা করেন, এবং তাঁর মা শকুন গয়াল একজন গৃহবধূ।

Advertisement

তবে যুবরাজকে ঠিক কী কারণে হত্যা করা হয়েছে, তা জানা যায়নি। কারণ রয়্যাল কানাডিয়ান পুলিশ রেকর্ড অনুযায়ী, তাঁর কোনও অপরাধমূলক কাণ্ডের খবর নেই। এই মূহুর্তে তার হত্যার উদ্দেশ্য তদন্তাধীন রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, ৭ জুন সকাল ৮:৪৬ মিনিট নাগাদ। তাঁকে হত্যার পরেই সারে পুলিশ ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার সারের 164 স্ট্রিটের 900-ব্লকে গুলি চালানোর একটি কল পেয়ে সেখানে ছুটে যান। সেখানে পৌঁছে অফিসাররা যুবরাজকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান। পুলিশ ইতিমধ্যেই সন্দেহভাজন চারজনকে হেফাজতে নিয়েছে। সন্দেহভাজনদের মধ্যে আছেন, মনভীর বাসরাম (২৩), সাহেব বসরা (২০), এবং সারির হরকিরাত ঘুট্টি (২৩) এবং অন্টারিওর কেইলন ফ্রাঙ্কোইস (২০)। তাঁদের বিরুদ্ধে শনিবার আরও হত্যার অভিযোগ আনা রয়েছে।

Advertisement

এই প্রসঙ্গে কানাডিয়ান পুলিশ জানিয়েছে, "আমরা সারে আরসিএমপি, এয়ার 1, এবং লোয়ার মেইনল্যান্ড ইন্টিগ্রেটেড ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম (আইইআরটি) এর কঠোর পরিশ্রমের জন্য কৃতজ্ঞ, তবে এখনও আরও কাজ করা বাকি আছে। ইন্টিগ্রেটেড হোমিসাইড ইনভেস্টিগেশন টিম (আইএইচআইটি) তদন্তকারীরা যুবারাজকে হত্যার কারণ জানার চেষ্টা করছে।" মামলার প্রাথমিক তদন্ত থেকে উঠে এসেছে যে, যুবরাজকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়েছিল, যদিও যুবরাজের হত্যার কারণগুলি এখনও অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

Advertisement
Tags :
Advertisement