For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে ছিনতাই, অভিযোগ জানাতে গিয়ে গ্রেফতার যুবক

05:27 PM Mar 07, 2024 IST | Mainak Das
লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে ছিনতাই  অভিযোগ জানাতে গিয়ে গ্রেফতার যুবক
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি : চোখ লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগ তোলে এক যুবক। এরপর সেই অভিযোগ পুলিশকে জানাতে গেলে বেকায়দার পড়ে যান তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে দেনার হাত থেকে বাঁচতে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন যুবক। শেষপর্যন্ত পুলিশ ওই অভিযোগকারীকেই গ্রেফতার করেছে।

Advertisement

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের সবং থানায় অন্তর্গত কসবা এলাকায়। ধৃত এই যুবকের নাম দিব্যেন্দু মুখোপাধ্যায় (৩৯)। দিব্যেন্দুর বাড়ি কেশপুর এলাকায়। দিব্যেন্দু একজন ব্যবসায়ী। ব্যবসা সূত্রেই কসবা এলাকায় স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন দিব্যেন্দু। জানা গিয়েছে, গত মঙ্গলবার স্থানীয় একটি ব্যাঙ্ক থেকে চার লক্ষ টাকা তোলেন দিব্যেন্দু। এরপর টাকার ব্যাগটি নিয়ে যখন দিব্যেন্দু রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলেন, তখন কিছু দুষ্কৃতী চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে ব্যাগটিকে ছিনতাই করে নিয়ে যায়।

Advertisement

এই ঘটনার পর পুলিশে অভিযোগ জানাতে যায় দিব্যেন্দু। সবং থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, পুরো ছি্নতাইয়ের ঘটনাটিই সাজানো। দিব্যেন্দুর কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর সেই টাকা দিব্যেন্দুর বাড়িতেই দিয়ে আসে ছিনতাইকারীরা। আসলে সম্প্রতি আর্থিক সমস্যা ভুগছিলেন দিব্যেন্দু। বাজারে ১৭ লক্ষ টাকার বেশি দেনা হয়ে গিয়েছিল। সেই দেনার হাত থেকে বাঁচতেই গল্প ফেঁদেছিলেন দিব্যেন্দু। পুরো বিষয় জানার পর সবংয়ের যুবককে জেরা করে পুলিশ। জেরা নিজের কীর্তির কথা স্বীকার করে নেন তিনি। এদিকে নিজের স্বামীকে বাঁচাতে আসরে নেমেছিলেন স্ত্রীও। নিজেকে কলকাতা পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকের আত্মীয় বলে পরিচয় দেন তিনি ও সবং থানার পুলিশ আধিকারিকদের নানাভাবে হুমকি দেওয়া হয়। শেষ পর্যন্ত গোটা ঘটনায় পুলিশ প্রশাসনকে বিভ্রান্ত করার অভিযোগে দিব্যেন্দুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে তাঁর স্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়নি।

Advertisement
Tags :
Advertisement