For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

শিয়ালদহ স্টেশনে ট্রেনের চালকদের জন্য তৈরি হল বিশেষ বিশ্রাম কক্ষ, রিডিং রুম ও স্বয়ংক্রিয় অ্যাটেনডেন্স মেশিন

02:16 PM Jul 09, 2024 IST | Subrata Roy
শিয়ালদহ স্টেশনে ট্রেনের চালকদের জন্য তৈরি হল বিশেষ বিশ্রাম কক্ষ  রিডিং রুম ও স্বয়ংক্রিয় অ্যাটেনডেন্স মেশিন
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস - এর দুর্ঘটনার পর এই ভাঙলো ঘুম? চালকদের জন্য খোলা হল বিশেষ বিশ্রাম কক্ষ। একের পর এক অভিযোগ উঠছিল রেলের বিরুদ্ধে। চালকদের ঘুম হচ্ছে না, বিশ্রাম পাচ্ছেন না তাঁরা। এরপরই নড়েচড়ে বসল রেল দফতর। চালকদের জন্য আলাদা ভাবে ব্যবস্থা করা হল বিশ্রাম কক্ষের।শিয়ালদহ স্টেশনের(Sealdaha Station) মেন শাখার উপরে অর্থাৎ তিনতলায় বিশ্রাম কক্ষ তৈরি করা হয়েছে।  রেল সূত্রে খবর, এতদিন ডরমেটরি কক্ষ ছিল। সেখানেই থাকতেন চালকরা। ছিল না কোনও বাতানুকূল যন্ত্র। ফলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ট্রেন চালিয়ে এসে গরমের মধ্যে চালকদের ঘুমোতে হত।

Advertisement

এমনকী,মনঃসংযোগ যাতে সঠিক থাকে তার জন্য ছিল না কোনও ব্যবস্থা। এবার পূর্ব রেলের তরফ মোট ৮টি বিশ্রাম কক্ষ করা হল। এক একটি কক্ষে ২টি করে বিছানা রয়েছে। মোট ১৬ টি পুরুষ চালকদের জন্য। ৮টি বিছানা রয়েছে মহিলা চালকদের জন্য। তাঁদের রুম সম্পূর্ণ আলাদা। অত্যাধুনিক এসি মেশিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে ওই বিশ্রাম কক্ষগুলি(Rest Room) সর্বদা ঠান্ডা থাকে। এছাড়া মনোসংযোগ সঠিক রাখার জন্য আলাদা কক্ষের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেখানে বসে যোগ ব্যায়াম করতে পারবেন চালকরা। তৈরি করা হয়েছে নতুন রিডিং রুম। সেখানে বই রাখা হয়েছে। চালকদের রান্নাঘর এবং খাবারের জায়গা সম্পূর্ণভাবে ভোল পাল্টে ফেলা হয়েছে।

Advertisement

তবে সব থেকে আধুনিক ব্যবস্থা করা হয়েছে, চালকদের যেখানে অ্যাটেনডেন্স দিতে হয় সেই ঘর। সেখানে অত্যাধুনিক মেশিনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। যেখানে বায়োমেট্রিক ছাপ দিয়ে উপস্থিতির তথ্য দিতে হবে চালকদের। এমনকী,মেশিনের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে অ্যালকোহল টেস্টের ব্যবস্থা। মেশিনগুলির উপরে থাকছে একটি করে স্ট্র। যেগুলি মেশিনের একটি নির্দিষ্ট অংশে ঢুকিয়ে চালকদের মুখ দিয়ে ফুঁ দিতে হচ্ছে। যেখানে পরীক্ষা করলেই চালকরা মদ খেয়ে ট্রেন চালাতে আসছেন কি না সেটা পরীক্ষা হয়ে যাবে। অর্থাৎ ট্রেনের চালকদের জন্য এবার সব রকমের ব্যবস্থা করল রেল।

Advertisement
Tags :
Advertisement