For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

মুর্শিদাবাদে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা

09:06 PM Dec 08, 2023 IST | Subrata Roy
মুর্শিদাবাদে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি,মুর্শিদাবাদ: মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একসাথে এতো সংখ্যক শিশুর মৃত্যুর তদন্তে এবার হাজির হ'ল রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ২ সদস্যের প্রতিনিধি দল। শুক্রবার রাতে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এসে পৌঁছান তারা। সরাসরি তারা উপস্থিত হন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের SNCU বিভাগে। কী কারণে হঠাৎ এতো সংখ্যক শিশুর মৃত্যু হ'ল বিষয়টি সরেজমিনে খতিয়ে দেখছেন রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ২ প্রতিনিধি ডাঃ বি. কে. পাত্র ও ডাঃ অভিজিৎ ভৌমিক। অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের(Murshidabad Medical College Hospital) প্রিন্সিপাল অমিত দাঁ জানিয়েছেন- ২৪ ঘন্টায় ১০টি শিশু মৃত্যুর পর গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও চারটি সদ্যোজাত শিশুর।

Advertisement

সব মিলিয়ে গত ৪৮ ঘন্টায় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মোট ১৪টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। কেন এত শিশুর মৃত্যু হচ্ছে এবং এর পেছনে প্রকৃত কারণ কি তা অনুসন্ধান করতেই স্বাস্থ্য দপ্তরের দুই প্রতিনিধি ওই হাসপাতালের গর্ভবতী বিভাগ সহ শিশু বিভাগে যান। কথা বলেন মৃত সদ্যোজাত শিশুদের মায়ের সঙ্গে। সবকটিই মৃত শিশুদের রিপোর্ট সংগ্রহ করেন তারা।মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে বুধবার রাত ১২টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় মোট ১০টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। এই মুহুর্তে ওই হাসপাতালে ভর্তি থাকা ৬০ শতাংশ শিশুর মৃত্যু হচ্ছে। মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ৩০ শতাংশ শিশু। আর সুস্থ রয়েছে মাত্র ১০ শতাংশ শিশু বলে দাবি জানাচ্ছে- মৃত শিশুদের পরিবারের সদস্যরা। এদিকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি- জেলার বেশিরভাগ হাসপাতাল থেকে এখানেই পাঠানো হচ্ছে এই সমস্ত রোগীদের। ফলে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পরিকাঠামোর তুলনায় রোগীর সংখ্যা বাড়ছে রীতিমতো উল্লেখযোগ্যহারে।

Advertisement

যদিও এই শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। অন্যদিকে জঙ্গীপুর মহকুমা হাসপাতালে SNCU বিভাগে কাজ চলার জন্য সেখান থেকেও রেফার করা হচ্ছে রোগীদের বলে জানিয়েছেন- মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রিন্সিপাল অমিত দাঁ। যদিও এই বিষয়ে জঙ্গীপুর মহকুমা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি- গত ৪৮ ঘন্টায় এমন কোনো রোগী রেফার করা হয়নি সেখান থেকে। 

Advertisement
Tags :
Advertisement