For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

বাগে পেয়েও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারল না নেদারল্যান্ডস

02:42 AM Jun 09, 2024 IST | Sundeep
বাগে পেয়েও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারল না নেদারল্যান্ডস
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল দক্ষিণ আফ্রিকা। শনিবার দ্বিতীয় ম্যাচে দুর্বল নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে দিল প্রোটিয়ারা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১০৩ রান তুলেছিল ডাচরা। জবাবে সাত বল বাকি থাকতেই হাতে চার উইকেট নিয়ে জিতে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা দুই ম্যাচ জিতে গ্রুপের শীর্ষেই রইলেন প্রোটিয়ারা।

Advertisement

নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে এদিন টসে জিতে প্রথম বল করার সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক আইডেন মার্করাম। শুরু থেকেই বল হাতে আগুন ঝরান মার্কো জানসেন ও ওট্টিনিয়েল বার্টম্যান। দুজনের বোলিংয়ের সামনে পড়ে দিশেহারা হয়ে যান নেদারল্যান্ডসের ব্যাটাররা। ৪৮ রানেই ছয় উইকেট খুঁইয়ে চরম বিপাকে পড়ে ডাচ শিবির। ষষ্ঠ উইকেটে সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট ও লোগান ভ্যান ভিক ৫৪ রান যোগ করে দলকে একশো রানের গণ্ডি পার করিয়ে দিয়ে চরম লজ্জার হাত থেকে বাঁচান। শেষ ওভারে তিন উইকেট হারায় বিশ্ব ক্রিকেটের শিক্ষানবিশ দলটি। পর পর সাজঘরে ফেরেন এঙ্গেলব্রেখট (৪০), টিম প্রিঙ্গল (০) ও লোগান বিক (২৩)। নেদারল্যান্ডসের ছয় ব্যাটসম্যানই এক অঙ্কের ঘর ডিঙোতে পারেননি। শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন তিন জন।

Advertisement

জয়ের জন্য ১০৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে শুরুতেই চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। স্কোর বোর্ডে ১২ রান যোগ হতে না হতেই সাজঘরে ফিরে যান প্রথম সারির চার ব্যাটসম্যান-কুইন্টন ডি’কক (০), রেজা হেনড্রিক্স (৩), অধিনায়ক আইডেন মার্করাম (০) ও  হাইনরিখ ক্লাসেন (০)। পর পর উইকেট হারানোয় হারের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে প্রোটিয়া শিবিরে। শেষ পর্যন্ত পঞ্চম উইকেটে জুটি বেঁধে ত্রিস্তান স্টাবস ও ডেভিড মিলার দলকে বিপর্যয়ের গর্ত থেলে টেনে তোলেন। দুজনে ৬৫ রান যোগ করেন। ১৭তম ওভারে বল করতে এসে বাস ডি লিডি জুটি ভাঙেন। ৩৭ বলে ৩৩ রান করে সাজঘরে পেরেন স্টাবস। এর পরে একা কুম্ভ হয়ে লড়াই করে দলকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন মিলার। ৫১ বলে তিনটি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে ৫৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

Advertisement
Tags :
Advertisement