For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

রক্ষাকবচ দিয়ে নিশীথকে হাইকোর্টে ফেরালো সুপ্রিম কোর্ট

কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রমাণিকের বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রেফতারির ওয়ারেন্টের ওপর কোনও স্থগিতাদেশ দিল না সর্বোচ্চ আদালত।
02:49 PM Jan 12, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
রক্ষাকবচ দিয়ে নিশীথকে হাইকোর্টে ফেরালো সুপ্রিম কোর্ট
Courtesy - Google and Facebook
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: কোচবিহার জেলায়(Coachbehar District) ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময়ে এক তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য খুনের(TMC Panchayat Member Murder Case 2018) ঘটনায় জেলার বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী(Union Minister of State for Home Affairs) নিশীথ প্রমাণিকের(Nisith Pramanik) বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রেফতারির ওয়ারেন্টের ওপর কোনও স্থগিতাদেশ দিল না সর্বোচ্চ আদালত(Supreme Court)। তবে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর আর্জি মেনে তাঁকে এদিন রক্ষাকবচ দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। একই সঙ্গে তাঁকে কলকাতা হাইকোর্টের(Calcutta High Court) জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে(Jalpaiguri Circuit Bench) ফেরত পাঠানো হয়েছে মামলার পূর্ণাঙ্গ শুনানি ও তার রায়দানের পথে যাতে কোনও বিড়ম্বনা তৈরি না হয় তার জন্য। তাই নিশীথের সামনে আগামী ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত সাময়িক স্বস্তি থাকলেও, তারপর কী হবে তা কারও জানা নেই। কেননা আগামী ২২ তারিখ কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে। সেখানে নিশীথের গ্রেফতারির নির্দেশ বজায় থাকলে আবারও সুপ্রিম কোর্টের দরজায় কড়া নাড়া ভিন্ন দ্বিতীয় কোনও রাস্তা খোলা থাকবে না নিশীথের কাছে।

Advertisement

২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময়ে তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য আবু মিঞার বাড়িতে দুষ্কৃতী হানার ঘটনা ঘটে। আবুকে গুলি করা ছাড়াও তাঁর মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাঁকে ধারাল অস্ত্র দিয়েও আক্রমণ করা হয়। আবুর স্ত্রী তাঁকে বাঁচাতে এলে তাঁকেও বেধড়ক মারধর করা হয়। আবুর ছেলে আসাদুল বাবাকে বাঁচাতে গেলে তাঁর পায়েও গুলি করা হয়েছিল। সেই ঘটনায় হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে নিশীথ প্রামাণিকের শিবিরের দিকে। নিম্ন আদালতে সেই মামলার শুনানি শেষ হয়েছে আগেই। সেখানে নিশীথকে গ্রেফতারির নির্দেশই দেওয়া হয়েছিল। তবে সেই নির্দেশের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চ আবেদন জানিয়েছিলেন নিশীথ। কিন্তু সেখানে সেই আর্জি খারিজ হয়েছে। তার জেরেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন নিশীথ। গতকাল সুপ্রিম কোর্ট নিশীথকে রক্ষাকবচ না দেওয়ার কথা জানালেও এদিন তাঁকে রক্ষাকবচ দেওয়া হয়েছে। তবে তাঁর বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রেফতারি পরোয়ানার ওপরে এদিন কোনও স্থগিতাদেশ চাপাতে রাজী হয়নি দেশের শীর্ষ আদালত।

Advertisement

এদিন অর্থাৎ শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে মামলার শুনানিতে নিশীথের আইনজীবী আবেদন করেন, কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে আগামী ২২ জানুয়ারি মামলার শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তত দিন পর্যন্ত তাঁর মক্কেলকে যেন শীর্ষ আদালত রক্ষাকবচ দেয় যাতে রাজ্য পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার না করতে পারে। যদিও এর বিরোধিতা করে রাজ্যের আইনজীবী। তিনি জানান, মৌখিক প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে যে, মন্ত্রীর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হবে না। কিন্তু এর জন্য রক্ষাকবচ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। নিশীথের আইনজীবীর পাল্টা বক্তব্য, যদি মৌখিক প্রতিশ্রুতি দিতে পারে রাজ্য, তা হলে লিখিত নির্দেশেও অসুবিধা থাকার কথা নয়। দু’পক্ষের সওয়াল-জবাব শেষে সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দেয়, কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে মামলার পরবর্তী শুনানি না হওয়া পর্যন্ত নিশীথের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ করতে পারবে না রাজ্য পুলিশ। সেই সঙ্গে বেঞ্চ জানায়, তাঁরা এখনই মামলার ভিতরের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে ইচ্ছুক নয়। তবে কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চের কাছে শীর্ষ আদালতের আবেদন, তাঁরা যেন আগামী শুনানিতে এই মামলা সংক্রান্ত যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেন সব দিক ভাল করে খতিয়ে দেখে।

Advertisement
Tags :
Advertisement