For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

‘দেশ কোন পথে চলবে, সেটা ঠিক করবে তৃণমূল কংগ্রেস’, ঘোষণা আত্মপ্রত্যয়ী মমতার

ব্রিগেডের সভা থেকেই মমতা দিশা দিয়ে দিলেন আগামী ভারতের ভবিষ্যতের। দিশা দিয়ে দিলেন আগামী সরকারের। দিশা দিয়ে দিলেন তিনি বিরোধীদের হারেরও।
04:32 PM Mar 10, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
‘দেশ কোন পথে চলবে  সেটা ঠিক করবে তৃণমূল কংগ্রেস’  ঘোষণা আত্মপ্রত্যয়ী মমতার
Courtesy - Twitter and Facebook
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: দিশা দিয়ে দিলেন তিনি আগামী ভারতের(India)। দিশা দিয়ে দিলেন তিনি আগামী সরকারের। দিশা দিয়ে দিলেন তিনি বিরোধীদের ভবিষ্যতের। নজরে বাংলার অগ্নিকন্যা, আগামী দিনের দেশনেত্রী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। জেলা সফরে বেড়িয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই জানিয়েছিলেন, দেশে এবার আঞ্চলিক দলগুলির সরকার হবে। কংগ্রেস(INC) ৪০’র নীচে আসন পাবে। সেই আত্মবিশ্বাস বজায় রেখে এদিন ব্রিগেডের জনসভা থেকেই তিনি জানিয়ে দিলেন, ‘দেশ কোন পথে চলবে, সেটা ঠিক করবে তৃণমূল কংগ্রেস। দিশা দেখাবে বাংলা। বাংলায় একা লড়বে তৃণমূল(TMC)। লড়াইটা তৃণমূল বনাম বিজেপি(BJP) হবে। জনগণের গর্জন, বাংলা বিরোধীদের বিসর্জন।’ কার্যত সাফ বুঝিয়ে দিলেন, দেশে তৈরি হওয়া বিজেপি বিরোধী জোট INDIA’র সঙ্গে তাঁর আর কোনও সম্পর্ক নেই। সম্পর্ক নেই বাম(Left) ও কংগ্রেসের সঙ্গে। যারা এখনও ছিটেফোঁটা আশা নিয়ে বসে আছেন, কংগ্রেস ও তৃণমূলের মধ্যে জোট গঠন হওয়া নিয়ে তাঁদের কার্যত হতাশার অন্ধকারে ঠেলে দিলেন তিনি। ধাক্কা দিলেন বামেদের পাশাপাশি কংগ্রেসকেও।

Advertisement

এদিন মমতা নাম না করেই নিশানা বানিয়েছেন বিজেপির পাশাপাশি বাম আর কংগ্রেসকেও। বলেছেন, ‘বাংলা আত্মনির্ভর হবে তখনই, যখন আমি তৃণমূলকে জেতাবেন। ১৮টি আসনে জিতেছিল বিজেপি। সেখানে কী করেছে বিজেপি? গত ৫ বছরের ১৮জন বিজেপি সাংসদ কী করেছেন?’ বস্তুত, অনেকেরই ধারনা ছিল যে, মমতা হয়তো শেষ মুহুর্তে বাংলার সব আসনে প্রার্থী দেবেন না। কয়েকটা হলেও আসন ছাড়বেন কংগ্রেসকে। বিশেষ করে উনিশের ভোটে জেতা বহরমপুর এবং দক্ষিণ মালদা কেন্দ্র হয়তো ছাড়বেন কংগ্রেসকে। কিন্তু এদিন সেই হিসাব ভুল প্রমাণিত হয়েছে। তবে তৃণমূল যে ২৪’র ভোটে বাংলা থেকে একাই লড়বে সেটা একাধিকবার মমতা ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। এবার সেটা চোখে আঙুল দিয়েই দেখিয়ে দিলেন। সেটাও বিজেপিকে ধাক্কা দিয়েই। 

Advertisement

যেমন কংগ্রেস চেয়েছিল রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র। সেখানে তিনি দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন বিজেপির হয়ে জেতা বিধায়ক এবং তৃণমূলে চলে আসা জনপ্রতিনিধি কৃষ্ণ কল্যাণীকে। আবার বহরমপুরে দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন দেশের ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠানকে। বিজেপি বিধায়ক হিসাবে পদ্মশিবির থেকে আসা মুকুটমণি অধিকারীকে যেমন তিনি রানাঘাটা থেকে প্রার্থী করেছেন তেমনি বিশ্বজিৎ দাসকে বনগাঁ থেকে প্রার্থী করেছেন। সুজাতা খাঁকে আবার প্রার্থী করছেন তাঁরই প্রাক্তন স্বামী সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে। এদিনের মমতার বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বলে দিয়েছে, তিনি নিশ্চিত ২৪’র ভোটে বিজেপি হারবে। তিনি নিশ্চিত দেশে পরবর্তী সরকার গড়ার খেলায় সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement
Tags :
Advertisement