For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

'আমার নামে ভাইরাল পদত্যাগপত্রটি সম্পূর্ণ ভুয়ো, তৃণমূলের হাত ছাড়ব না': সায়ন্তিকা

আমার যা অভিমানের কথা তা আমি জানিয়েছি সুব্রতই বক্সিকে। আর একটা কথা খুব পরিষ্কার যে, আমি এই দলে ছিলাম, আছি থাকব।
03:28 PM Mar 11, 2024 IST | Sushmitaa
 আমার নামে ভাইরাল পদত্যাগপত্রটি সম্পূর্ণ ভুয়ো  তৃণমূলের হাত ছাড়ব না   সায়ন্তিকা
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: গতকাল ব্রিগেডে তৃণমূলের 'জনগর্জন' সভায় জনগণের সামনেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে তৃণমূল। আর এবার তৃণমূলের নাম ঘোষণার আগে থেকেই চলছিল বিস্তর জল্পনা। তাই তো তৃণমূলের ৪২ জন প্রার্থীতালিকার প্রথম থেকেই ছিল পরতে পরতে চমক। তারকাদের মধ্যে প্রার্থী হয়েছেন, জুন মালিয়া, সায়নী ঘোষ, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, শতাব্দী রায়, দেব। যাঁদের মধ্যে নয়া সংযোজন রচনা বন্দোপাধ্যায়ের নাম। হুগলি থেকে প্রার্থী হয়েছেন রচনা, তাঁর বিরোধী নেত্রী হলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। একদম লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি।

Advertisement

যাই হোক, এতগুলো নতুন প্রার্থীর মধ্যে হারিয়ে গেলেন টলি অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহান এবং সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়রা। ২০২১ সালে বাঁকুড়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল প্রার্থী হয়েছিলেন সায়ন্তিকা। কিন্তু বিজেপি প্রার্থী নীলাদ্রিশেখর দানা-র কাছে হেরে যান তিনি। তবে ভোটে হেরে গেলেও তিনি তৃণমূলের সাংগঠনিক দায়িত্ব পেয়েছিলেন। এমনকি তাঁকে দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদকও করা হয় তাঁকে। সুতরাং আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়া লোকসভা থেকে টিকিট পাবেন সায়ন্তিকা, সেটাই নিশ্চিত ছিলেন তিনি। কিন্তু গতকাল যখন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়, বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী অরূপ চক্রবর্তীর নাম ঘোষণা করলেন তখনই হতাশায় মুখ ঢেকে যায় সায়ন্তিকার। এরপরই হতাশ হয়ে রবিবার রাতে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীকে তাঁর ইস্তফাপত্র পাঠান অভিনেত্রী। যেখানে স্পষ্ট লেখা ছিল, তিনি রাজ্যের সমস্ত পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন। এমনই একটি চিঠি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু সেই চিঠি নাকি অভিনেত্রী পাঠাননি। সম্পূর্ন ভুয়ো এই চিঠিটি।

Advertisement

এই প্রসঙ্গে একটি সংবাদমাধ্যমকে অভিনেত্রী নিজেই জানিয়েছেন, "আমার যা অভিমানের কথা তা আমি জানিয়েছি সুব্রতই বক্সিকে। আর একটা কথা খুব পরিষ্কার যে, আমি এই দলে ছিলাম, আছি থাকব। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটূ আমার পদত্যাগপত্র হিসেবে যেটি আপনারা দেখছেন সেটিতে আমার কোন স্বাক্ষর নেই। যে কেউ ছাপিয়ে আপলোড করতেই পারে। চিঠিটি পুরোপুরি ফেক। একটা কথা জানিয়ে রাখি, বিজেপি পক্ষ থেকে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল কিন্তু কোনও জবাব পাইনি। আর আমি বারবার তৃণমূলকে এটাই বলব আমি তাঁদের সঙ্গে ছিলাম, আছি থাকব। তবে আমাকে কেন মনোনীত করা হল না সেটা দলের পক্ষ থেকে আমাকে জানিয়ে দিলে ভালো হয়। কারণ আমি তিন বছর ধরে তো আমি একটা মানসিক প্রস্তুতি নিয়েছিলাম।"

Advertisement
Tags :
Advertisement