For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

ডায়মন্ডহারবারে মোদি দাঁড়ালেও জিতবেন অভিষেকই, আত্মবিশ্বাসী তৃণমূল

তৃণমূল বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই জানিয়ে দিল, নৌসাদ তো কোন ছারপোকা, ডায়মন্ডহারবারে নরেন্দ্র মোদি এসে দাঁড়ালেও জিতবেন সেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ই।
12:17 PM Nov 07, 2023 IST | Koushik Dey Sarkar
ডায়মন্ডহারবারে মোদি দাঁড়ালেও জিতবেন অভিষেকই  আত্মবিশ্বাসী তৃণমূল
Courtesy - Google and Whatsapp Channel
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের(General Election 2024) দিনক্ষণ এখনও ঘোষিত হতে দেরী আছে। কিন্তু তার আগেই লড়াই আঁচ চড়ছে কলকাতার কান ঘেঁষে থাকা ডায়মন্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের(Daimond Harbour Constituency) এলাকায়। কেননা তৃণমূলের(TMC) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Abhishek Banerjee) বিরুদ্ধে এবার ISF বিধায়ক নৌশাদ সিদ্দিকিকে(Nowsad Siddique) বিরোধী শিবিরের সর্বসন্মতিক্রমে প্রার্থী করতে জোর তৎপরতা শুরু হয়ে গিয়েছে। সূত্রে জানা যাচ্ছে, রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী(Suvendu Adhikari) নিজে এই তৎপরতা শুরু করেছেন। প্রাথমিক ভাবে সেই প্রয়াসে বাম ও কংগ্রেসের সমর্থনও মিলেছে। যদিও এদিনই অর্থাৎ মঙ্গলবার অভিষেকের ৩৬তম জন্মদিনে তৃণমূল বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই জানিয়ে দিল, নৌসাদ তো কোন ছারপোকা, ডায়মন্ডহারবারে নরেন্দ্র মোদি এসে দাঁড়ালেও জিতবেন সেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ই।

Advertisement

বিরোধী শিবিরের সর্বসম্মত প্রার্থী হিসেবে ডায়মন্ডহারবারে অভিষেকের বিরুদ্ধে প্রার্থী হতে যে তিনিও রাজি সেটা জানিয়ে দিয়েছেন খোদ নৌসাদও। বলেছেন, দলের অনুমোদন থাকলে অভিষেকের বিরুদ্ধে ডায়মন্ডহারবারে লড়তে আপত্তি নেই তাঁর। ২০১৪ সাল থেকে অভিষেক ডায়মন্ডহারবারের সাংসদ। সেখানেই তাঁকে টেক্কা দিতে চাইছেন নৌশাদ। অভিষেককে হারানো নিয়ে আত্মবিশ্বাসী তিনিও। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদককে চ্যালেঞ্জও ছুঁড়ে দিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ‘মানুষ সঠিক ভাবে ভোট দিলে, পরাজিত হয়ে কালীঘাটে ফিরে আসবেন অভিষেক।’ তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, ডায়মন্ডহারবারে অভিষেককে হারানোরক ডাক দিয়েছেন শুভেন্দুও। এমনকি ডায়মন্ডহারবার আসনটি ISF-কে ছেড়ে দেওয়া হয়ে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরীও। ডায়মন্ডহারবারে সংখ্যালঘু ভোট প্রায় ৫০ শতাংশ। সেই অঙ্ককে সামনে রেখেই অভিষেকের বিরুদ্ধে নৌশাদকে প্রার্থী করতে আগ্রহী বিরোধীরা।

Advertisement

যদিও গোটা বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে নারাজ তৃণমূল। দলের নেতা তথা রাজ্যের সেচমন্ত্রী পার্থ ভৌমিকের বক্তব্য, ‘বিরোধী দলনেতাকে বলবেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ডায়মন্ডহারবারে দাঁড় করাতে। তাহলেও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ই জিতবেন। এর পর অন্য কে দাঁড়ালেন, কে দাঁড়ালেন না, সেটা আদৌ প্রাসঙ্গিক বলে মনে হয় না আমার। অধীরবাবু এবং বিরোধী দলনেতা আমাদের সাহায্যই করেছেন। কারণ আমরা বার বার বলেছি, বাংলার মাটিতে অধীরবাবু বিজেপি-র সহযোগিতা করেন। আরও একবার তা প্রমাণিত হল।" শেষ পর্যন্ত ডায়মন্ড হারবারে অভিষেকের বিরুদ্ধে নৌশাদ ভোটে দাঁড়ায় কিনা, তা সময়ই বলবে। তবে এই মুহূর্তে সেই সম্ভাবনা ঘিরেই পারদ চড়ছে রাজনীতির।

Advertisement
Tags :
Advertisement