For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

প্রাক্তন স্বামীর হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেলেন বিখ্যাত মার্কিন ইনফ্লুয়েন্সার

থেরেসার স্বামীই তাঁকে খুন করেছে। জেসন ক্যাচুয়েলা স্ত্রীকে হত্যার পরেই ঘটনাস্থল থেকে তিনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।
03:57 PM Dec 26, 2023 IST | Sushmitaa
প্রাক্তন স্বামীর হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেলেন বিখ্যাত মার্কিন ইনফ্লুয়েন্সার
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রাক্তন স্বামী দিবালোকে নিজের স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করলেন।মারা গেলেন বিখ্যাত হাওয়াইয়ান সোশ্যাল মিডিয়া প্রভাবশালী তথা সৌন্দর্য উদ্যোক্তা থেরেসা ক্যাচুয়েলা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৩ বছর। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম অনুযায়ী, থেরেসা ক্যাচুয়েলাকে তাঁর বিচ্ছিন্ন স্বামী জেসন ক্যাচুয়েলা মাথায় গুলি করে হত্যা করেছেন। আর সম্পূর্ণ ঘটনাটি ঘটেছে তাঁদের ৮ বছরের মেয়ের সামনে। হনলুলু সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে অনুযায়ী, পুলিশ কর্তৃপক্ষ হৃদয়বিদারক ঘটনাটিকে হত্যা হিসেবে তদন্ত করছে। মিসেস থেরেসা, যিনি মুলত তিন সন্তানের জননী। তাঁকে গুলি করার পরেই তিনি জীবন হারিয়েছেন। KITV- এর মতে, সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সারকে তাঁর ৮ বছর বয়সী মেয়ের সামনেই গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

Advertisement

পুলিশের কথায়, থেরেসার স্বামীই তাঁকে খুন করেছে। জেসন ক্যাচুয়েলা স্ত্রীকে হত্যার পরেই ঘটনাস্থল থেকে তিনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, মাত্র ২ সপ্তাহ আগেই তাঁদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। কোনও রাগের বশে মিসেস থেরেসা খুন হন। হাওয়াই ট্রিবিউন অনুসারে, পুলিশের মতে এটি একটি সাজানো পরিকল্পনা ছিল। কারণ শিকার এবং সন্দেহভাজন তাঁরা সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। তাই এটি কোনভাবেই আত্মহত্যা নয়। তাঁকে খুন করা হয়েছে। পুলিশ জেসন ক্যাচুয়েলার সম্পত্তি থেকে পাঁচটি নিবন্ধিত আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে। ঘটনায় থেরেসার সন্তানরা বিশ্বাসই করতে পারছে না যে তাঁদের মা আর নেই!

Advertisement

টিআরও-র আবেদন অনুসারে, জেসন বারবার আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছিলেন। হাওয়াই ট্রিবিউন অনুসারে থেরেসার মা লিখেছেন, "জেসন তাঁকে একা ওয়াইকিকিতে নিয়ে গিয়ে ঘাড়ে ছুরি ধরে আঘাত করে এবং আত্মহত্যার ভয় দেখিয়েছিল। পরের দিন সকালে সে ক্ষমা চাওয়ার জন্য খুব ভোরে তাঁর বাড়িতে দেখা করে। আমি তাকে সাহায্য করার এবং তার সাথে কথা বলার চেষ্টা করি কিন্তু সে আবার আত্মহত্যার হুমকি দিতে থাকে।" মিসেস ক্যাচুয়েলার মা একটি GoFundMe পৃষ্ঠায় দুঃখজনক শুটিংয়ের বর্ণনা দিয়ে বলেছেন," আমার মেয়ে শুক্রবার সকালে আমার সঙ্গে নাস্তা করার পরিকল্পনা করেছিল। আমি তাকে এবং আমার নাতি-নাতনিদের বড়দিনের উপহার দিতে চেয়েছিলাম।"

Advertisement
Tags :
Advertisement