For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

চিরঘুমের দেশে পদ্মশ্রীপ্রাপ্ত প্রখ্যাত অভিনেতা সাধু মেহের

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় (সিএমও)। রাজ্যের রত্নকে হারিয়ে শোকাহত ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকও।
02:06 PM Feb 03, 2024 IST | Sushmitaa
চিরঘুমের দেশে পদ্মশ্রীপ্রাপ্ত প্রখ্যাত অভিনেতা সাধু মেহের
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিনোদন মহলে একের পর এক শোকের ছায়া। প্রয়াত প্রখ্যাত অভিনেতা সাধু মেহের। যিনি কিনা ওড়িশা ইন্ডাস্ট্রির প্রথম জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেতা ছিলেন। শুধু তাই নয়, তাঁর ঝুলিতে রয়েছে একাধিক ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্র এবং সম্মানিত পুরস্কার। মৃত্যুকালে বর্ষীয়ান অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। প্রবীণ অভিনেতা সাধু মেহের, যিনি মৃণাল সেন, শ্যাম বেনেগাল এবং তপন সিনহার মতো একাধিক কিংবদন্তি পরিচালকদের ছবিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন, এই শিল্পে তাঁর অসাধারণ অবদান সারাজীবন মনে থাকবে গোটা দেশের। প্রবীণ অভিনেতাকে হারিয়ে স্বাভাবিকভাবেই বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিতে শোকের ছায়া। শুক্রবার বিখ্যাত অভিনেতা মুম্বইয়েই তাঁর বাসভবনে মারা গিয়েছেন।

Advertisement

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় (সিএমও)। রাজ্যের রত্নকে হারিয়ে শোকাহত ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকও। তিনি বলেছেন, “মেহের হলেন প্রথম ওড়িয়া অভিনেতা যিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে সম্মানিত হয়ে ছিলেন। তাঁর চলে যাওয়া শিল্প জগতের জন্য একটি অপূরণীয় ক্ষতি।" মেহের ওড়িশার বৌধ জেলার বাসিন্দা ছিলেন। বাংলা, হিন্দি সিনেমার পাশাপাশি তিনি বেশ কিছু ওড়িয়া সিনেমায় অভিনয়, পরিচালনা ও প্রযোজনাও করেছেন। মেহেরের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন তাঁর ইন্ডাস্ট্রির সকল সহকর্মী। তাঁর কর্মজীবনের প্রথম দিকে, মেহের মৃণাল সেনের 'ভুবন শোম' (১৯৬৭) এবং 'মৃগয়া' (দ্য রয়্যাল হান্ট, ১৯৭৭) এবং শ্যাম বেনেগালের 'অঙ্কুর' (দ্য সিডিং, ১৯৭৪) ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। আর 'অঙ্কুর' ছবির জন্যেই তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন। মেহের দূরদর্শনের জনপ্রিয় গোয়েন্দা সিরিজ ব্যোমকেশ বক্সীর বেশ কয়েকটি পর্বে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তিনি অনিল কাপুর এবং কাজল অভিনীত বলিউড মুভি 'হাম আপকে দিল মে রেহতে হ্যায়' (১৯৯৯) এও অভিনয় করেছিলেন। বৌড় জেলার পালসাগুড়ার কাছে গুভেলিপাদার গ্রামে জন্মগ্রহণকারী মেহের পরে ওডিয়া চলচ্চিত্র শিল্পে প্রবেশ করেন।

Advertisement

তাঁর পরিচালনার জনপ্রিয় ওড়িয়া চলচ্চিত্রগুলির ছিল, 'অভিমান', 'অপরিচিত', 'ডিজায়ার' এবং 'অভিলাশা', সবটাই সমালোচকদের দ্বারা প্রশংসিত হয়েছিল, এছাড়াও তাঁর 'ভুখা' চলচ্চিত্রটি সবথেকে বেশি জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছিল তাঁকে। মেহের বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, সন্দীপ রায় এবং উৎপলেন্দু চক্রবর্তী পরিচালিত বেশ কয়েকটি বাংলা চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। বিনোদন ক্ষেত্রে আজীবন অবদানের জন্য তিনি ২০১৭ সালে পদ্মশ্রীতেও সম্মানিত হয়েছিলেন। ২০১১ সালে ওড়িশা সরকার তাঁকে জয়দেব সম্মান দিয়ে সম্মানিত করেছিল।

Advertisement
Tags :
Advertisement