For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

৪ বছরে দ্বিগুণ হয়েছে শীর্ষ পাঁচ ধনকুবেরের সম্পদ, গরিব হয়েছে ৪৭৭ কোটি মানুষ

06:35 PM Jan 15, 2024 IST | Sundeep
৪ বছরে দ্বিগুণ হয়েছে শীর্ষ পাঁচ ধনকুবেরের সম্পদ  গরিব হয়েছে ৪৭৭ কোটি মানুষ
Advertisement

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সেই কবেই লিখেছিলেন, ‘এ জগতে হায়, সে বেশি চায়, আছে যার ভুরিভুরি/ রাজার হস্ত করে সমস্ত কাঙালের ধন চুরি।’ কবিতার পংক্তিগুলি কতটা সত্যি ফের একবার প্রমাণ মিলল। বিশ্বজুড়ে যখন শীর্ষ ধনীরা অর্থের পাহাড়ে চেপে বসছেন, তখন ক্রমশই নিঃস্ব আর হতদরিদ্র হয়েছেন ৪৭৭ কোটির বেশি মানুষ। এমনই চমকে ওঠার মতো তথ্ প্রকাশ করেছে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান  অক্সফ্যাম।

Advertisement

সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘গত চার বছরে বিশ্বের সেরা ধনকুবের তালিকায় প্রথম পাঁচে থাকা শিল্পপতির সম্পদ প্রতি ঘণ্টায় ১৪ মিলিয়ন ডলার হারে বেড়েছে। ওই পাঁচ ধনকুবের হলেন টেসলার সিইও ইলন মাস্ক, ফরাসি শিল্পপতি বার্নার্ড আর্নল্ট, অ্যামাজনের জেফ বেজোস, বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেট ও ওরাকলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি এলিসন। ২০২০ সালে এই পাঁচ বিলিওনিয়ারের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল  ৪০৫ বিলিয়ন বা ৪০ হাজার ৫০০ কোটি ডলার। তা গত চার বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৬৯ বিলিয়ন বা ৮৬ হাজার ৯০০ কোটি ডলারে। অর্থাৎ চার বছরে তাদের সম্মিলিত সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে ৪৬৪ বিলিয়ন বা ৪৬ হাজার ৪০০ কোটি ডলার।’

Advertisement

ইলন মাস্ক, বার্নার্ড আর্নল্টের সম্পদের পরিমাণ যখন লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে তখন দরিদ্রতম ৪৭৭ কোটি মানুষের (বিশ্ব জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ) মোট সম্পদ ০ দশমিক ২ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। মূল্যস্ফীতি, যুদ্ধ ও জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সঙ্কটের কারণে তাদের দারিদ্র্য আরও বেড়েছে। ওই ধাক্কা সামলে উঠতে ২৩০ বছরের মতো সময় লাগবে।

অক্সফ্যামের প্রতিবেদন অনুযায়ী, শীর্ষ পাঁচ ধনীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সম্পদ বেড়েছে ইলন মাস্কের। টেসলা কর্ণধারের সম্পদের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪,৫৫০ কোটি ডলার। যা ২০২০ সালের মার্চের তুলনায় ৭৩৭ শতাংশ বেশি। ইলন মাস্কের ঠিক পরেই রয়েছেন লুই ভিতোঁর চেয়ারম্যান বার্নার্ড আর্নল্ট। তার সম্পদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯,১৩০ কোটি ডলার, যা ২০২০ সালের মার্চের তুলনায় ১১১ শতাংশ বেশি। একই সময়ে অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসের সম্পদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬,৭৪০ কোটি ডলারে। যা আগের তুলনায় ২৪ শতাংশ বেশি।।

Advertisement
Tags :
Advertisement