For the best experience, open
https://m.eimuhurte.com
on your mobile browser.
OthersWeb Stories খেলা ছবিঘরতৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিংবাংলাদেশপ্রযুক্তি-বাণিজ্যদেশকলকাতাকৃষিকাজ বিনোদন শিক্ষা - কর্মসংস্থান শারদোৎসব লাইফস্টাইলরাশিফলরান্নাবান্না রাজ্য বিবিধ আন্তর্জাতিককরোনাএকুশে জুলাইআলোকপাতঅন্য খবর
Advertisement

‘কুর্সিতে যখন ছিল, তখন কেউটে ছিল’, নাম না করেই অভিজিতকে আক্রমণ মমতার

মুখোশধারী বিচারকদের বিচার এবার জনতা করবে। কুর্সিতে যখন ছিল, তখন কেউটে ছিল। বাইরে বেরিয়ে গোখরো - মমতার নিশানায় 'ভগবান' গঙ্গোপাধ্যায়।
03:50 PM Mar 10, 2024 IST | Koushik Dey Sarkar
‘কুর্সিতে যখন ছিল  তখন কেউটে ছিল’  নাম না করেই অভিজিতকে আক্রমণ মমতার
Courtesy - Facebook and Google
Advertisement

নিজস্ব প্রতিনিধি: সবাই অপেক্ষায় ছিল। কখন তিনি মুখ খুলবেন। অনুমান ছিল ব্রিগেডের সভা থেকেই আক্রমণ ধেয়ে যেতে পারে। সেটাই হল। তিনি মুখ খুললেন, অনুরোধ জানালেন, আক্রমণও করলেন। নজরে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। এদিন ব্রিগেডের মাঠে জনগর্জনের সভা থেকেই তিনি নিশানা বানালেন সদ্য সদ্য কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি পদ থেকে অবসর নেওয়া সম্ভাব্য পদ্মপ্রার্থী অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে(Abhijit Gangopadhay)। তাঁকে বাছে বাছা শব্দে মমতা যে শুধু আক্রমণ শানালেন তাই নয়, কার্যত কেউটো ও গোখরো সাপের(Cobra) সঙ্গেও তুলনা টানলেন। সেই সঙ্গে রাজ্যের ও দেশের বিচারপ্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত বিচারপতিদের কাছে আর্জি জানালেন, তাঁরা যেন কোনও রাজনৈতিক দলের হয়ে বিচারকার্য সম্পাদন না করেন। তাঁদের নিরপেক্ষ ভাবেই সেই কাজ সারতে অনুরোধ জানালেন মমতা।

Advertisement

এদিন ব্রিগেডের সভা থেকে অভিজিতের নাম না করেই মমতা তাঁকে লক্ষ্য করে আক্রমণ শানিয়ে বলেন, ‘ওদের মুখোশ তো দেখছেন। কেউটে সাপের থেকেও ভয়ংকর। কুর্সিতে যখন ছিল, তখন কেউটে ছিল। বাইরে বেরিয়ে গোখরো। পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করছেন। প্রচুর ছেলেমেয়ের চাকরি খেয়েছো। মুখোশধারী বিচারকদের বিচার এবার জনতা করবে। কেউটে সাপের থেকেও ভয়ংকর। বিচারপ্রক্রিয়াকে সম্মান করি, কিন্তু কেউ কেউ চেয়ারে কেউটে হয়ে বসেছিল। বিচারব্যবস্থার কাছে হাতজোর করছি। মানুষ আপনাদের কাছে বিচারের জন্য যায়। কোনও দলের হয়ে কাজ করবেন না। বিচারব্যবস্থাকে অনুরোধ করছি, বিজেপির কুর্সিতে বসে বিচার করবেন না।’ উল্লেখ্য, অভিজিতবাবু শুধু যে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তাই নয়, সম্ভবত তিনি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুক লোকসভা কেন্দ্র থেকে পদ্মপ্রার্থী(BJP Candidate) হচ্ছেন ২৪’র ভোটে(General Election 2024)। ঘটনাচক্রে এদিনই ব্রিগেডের সভা থেকেই তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানেই দেখা যাচ্ছে অভিজিতবাবু তমলুক(Tamluk Constituency) থেকে পদ্মপ্রার্থী হলে তাঁকে লড়াই করতে হবে তৃণমূলের(TMC) কচি ছেলে দেবাংশু ভট্টাচার্যের(Debangshu Bhattacharya) বিরুদ্ধে। দেবাংশুর কাছে হেরে গেলে প্রাক্তন বিচারপতির লজ্জার মাথাটাও থাকবে না।

Advertisement

ঘটনা হচ্ছে, অভিজিতের ওপর হাড়ে খেপে রয়েছে বামেরা। অনেকেরই অনুমান, তমলুকে অভিজিৎ পদ্মপ্রার্থী হলে বাম ভোট রামের বদলে তৃণমূলের বাক্সেই ঢুকে যাবে। আবার যেহেতু এই কেন্দ্রের বর্তমান সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী এখনও বিজেপির টিকিট পাননি, তাই শুভেন্দু অধিকারীও সম্ভবত অভিজিতের হয়ে মরিয়া হয়ে প্রচারে নামবেন না। বরঞ্চ তিনি বেশি জোর দেবেন কাঁথিতে যেখানে তাঁর ভাই সৌমেন্দু পদ্মপ্রার্থী হয়েছেন। অর্থাৎ অভিজিৎ না পাবেন বামেদের ভোট না পাবেন পুরো বিজেপি ভোট। তৃণমূলের কিন্তু সেই দিক দিয়ে ঘর গোছানোর পালা এসে গেল। নন্দীগ্রাম তো বটেই, ময়নার মতো বিজেপি প্রভাবিত এলাকা থেকে পদ্মের ঝাড় সাফ করার সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে গেল জোড়াফুল।

Advertisement
Tags :
Advertisement